স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: আগুনে পুড়ে গিয়েছিল সবকিছু৷ তারপর ১৮টি পরিবারের ঠাঁই হয়েছিল অস্থায়ী শিবিরে৷ প্রকট শীতে কোনভাবে দিন কেটেছে৷ ন’দিন পরে পরিবারগুলোর হাতে তুলে দেওয়া হল নতুন ঘরের চাবি৷ মন্ত্রী সুজিত বসুর সাহায্যে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার পেল নতুন ঘর৷ আগামী মাসে প্রতিটি ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে সরকারের পক্ষ থেকে ৩৫ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে৷

২০১৯ সালের নববর্ষের দিন ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো পেল নতুন ঘর৷ টিনের ছাউনি,পাকা মেঝে এমই ১৮ টি ঘর তৈরি করা হয়েছে৷ মঙ্গলবার ওই ঘরের চাবি ঘরহারা পরিবারের হাতে তুলে দেন দমকল মন্ত্রী সুজিত বসু৷ এছাড়া তাদেরকে দেওয়া হয়েছে শীতবস্ত্র, রান্নার জিনিসপত্র,এক বস্তা করে চাল ও অন্যান্য জিনিসপত্র৷

বিধাননগর পুরসভার কাউন্সিলর নির্মল দত্ত জানান,শুধু ঘর বা আসবাবপত্রই নয়, প্রত্যেক পরিবারকে দেওয়া হবে নগদ টাকা৷

গত বছর ২৩ ডিসেম্বর সকালে আগুন লাগে সল্টলেকের দত্তাবাদের বস্তিতে। সম্পূর্ণ পুড়ে ছাই হয়ে যায় ১৮টি ঝুপড়ি। ক্ষতিগ্রস্ত হয় আরও চারটি ঝুপড়ি৷ সেদিন সকাল ৯টা নাগাদ আগুন লেগেছিল ১১৪ নম্বর ওয়ার্ডের লাগোয়া এই বস্তিতে৷ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, নতুন ঘর তৈরি করে দেওয়া হবে৷ ন’দিনের মধ্যে তিনি তার প্রতিশ্রুতি পালন করলেন৷