কলকাতা: বোর্ডের এজিএমে যোগ দিতে মঙ্গলের দুপুরের ফ্লাইটেই মুম্বই উড়ে যাচ্ছেন। তাঁর আগে সোমবার বিকেলে সিএবি’তে সাংবাদিকদের সঙ্গে প্রশ্নোত্তর পর্বে নানা বিষয় নিয়ে কথা বললেন বিসিসিআই’য়ের নয়া প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। সেখানে আগামী নভেম্বরে ইডেনে ভারত-বাংলাদেশ টেস্ট নিয়ে নানা পরিকল্পনার পাশাপাশি প্রেসিডেন্ট পদে দায়িত্ব গ্রহণ পরবর্তী সময় নানা পরিকল্পনার কথাও জানালেন মহারাজ।

বাংলাদেশের বিরুদ্ধে আসন্ন টেস্ট সিরিজে বিরাটের বিশ্রাম নিয়ে যে জল্পনা তৈরি হয়েছে, সেবিষয়ে এদিন প্রশ্ন করা হয় সৌরভকে। উত্তরে সৌরভ জানান দায়িত্ব নিয়েই কোহলির সঙ্গে এবিষয়ে কথা বলবেন তিনি। মহারাজ বলেন, ‘২৪ তারিখ আমি বিরাটের সঙ্গে আলোচনায় বসব। প্রেসিডেন্ট হিসেবে অধিনায়কের সঙ্গে যেমন আলোচনা করা প্রয়োজন আমাদের মধ্যে তেমনই আলোচনা হবে। অধিনায়ক হিসেবে ও বিশ্রামের আবেদন করতেই পারে।’

২৩ অক্টোবর বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট পদে দায়িত্বভার গ্রহণ করার আগেই সিএবি প্রেসিডেন্ট পদে ইস্তফা দেবেন মহারাজ। সুপ্রিম কোর্টের ফরমান অনুযায়ী এক ব্যক্তি বোর্ডের একাধিক পদে আসীন হতে পারবেন না। তাই বিসিসিআই পদে কার্যভার বুঝে নেওয়ার আগে সিএবি প্রেসিডেন্ট পদে অবশ্যই ‘প্রাক্তন’ হতে হবে মহারাজকে। আগামী ২৫ অক্টোবর কলকাতায় ফিরে সিএবি’র ফেয়ারওয়েল একইসঙ্গে সংবর্ধনা জ্ঞাপন অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার কথা তাঁর। যদিও অনুষ্ঠানের খরচ কমানোর জন্য ইতিমধ্যেই দরবার করেছেন সৌরভ। শোনা যাচ্ছে, ওইদিন সৌরভের সংবর্ধনা জ্ঞাপন অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পারেন তাঁর একদা সতীর্থ ভিভিএস লক্ষ্মণ।

আরও পড়ুন: লিফ-আর্টে ভাইরাল মহারাজ, বিসিসিআই প্রেসিডেন্টের সঙ্গে দেখা করলেন শিল্পী রুপম

১১ দফা দাবি নিয়ে সোমবার ধর্মঘট শুরু করেছেন শাকিব আল হাসান সহ বাংলদেশের অন্যান্য ক্রিকেটাররা। প্রসঙ্গে সৌরভ বলেন এটা ওদের আভ্যন্তরীন বিষয়। তবে এই ঘটনা বাংলাদেশের ভারত সফরে কোনওরকম প্রভাব ফেলবে না বলে মনে করেন তিনি। এমনকি প্রয়োজনে তিনি প্রেসিডেন্ট পদে বসে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে ইঙ্গিতপূর্ণ আলোচনা করতেও রাজি বলে জানান বোর্ডের নয়া প্রেসিডেন্ট।

আরও পড়ুন: পারিশ্রমিক বৃদ্ধি সহ একাধিক দাবিতে ধর্মঘটে ক্রিকেটাররা

পাশাপাশি দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে চলতি সিরিজে ভারতীয় দলের পারফরম্যান্সের ভূয়সী প্রশংসা করেন সৌরভ। একইসঙ্গে ওপেনার হিসেবে টেস্ট ক্রিকেটে নতুনভাবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করা রোহিত শর্মা কিংবা বঙ্গ পেসার মহম্মদ শামিকে নিয়েও আলাদা বাক্য খরচ করেন দেশের অন্যতম সফল ক্রিকেট অধিনায়ক।