নয়াদিল্লি: প্রাক্তন অর্থমন্ত্রীর গ্রেফতারির পর থেকেই আসরে নেমেছে কংগ্রেসের হেভিওয়েট নেতৃবৃন্দ। পাশাপাশি ছেলে কার্তি চিদাম্বরম বাবা’র বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হয়েছে বলেও দাবি করেছেন৷ আইএনএক্স মিডিয়ার কর্তা পিটার বা ইন্দ্রানী মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে বাবা কোনও দিন দেখা করেননি বলেও জানান প্রাক্তন অর্থমন্ত্রীর পুত্র৷

বৃহস্পতিবার সকালে চেন্নাই থেকে দিল্লিতে ফেরেন কার্তি৷ বিমান বন্দরে নেমে কার্তি সাংবাদ মাধ্যমকে জানান, ‘শুধুমাত্র তাঁর পিতাই রাজনৈতিক ষড়যন্ত্রের শিকার এমনটা নয়, পুরো কংগ্রেস দলের উপরেই রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার চেষ্টা চলছে।’প্রতিবাদ স্বরূপ জন্তর মন্তরে ধর্নায় বসতে পারেন বলেও জানান চিদাম্বরম পুত্র।

তিনি আরও বলেন, ‘আমার বাবা ও আমি রাজনীতির শিকার। আমার বাবা একজন সৎ ও নিষ্ঠাবান মানুষ৷ যিনি দেশের মানুষের স্বার্থে সেবা করেছেন৷ তাঁকে যে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে, তা পালন করেছেন৷ বাবা একজন স্পষ্টবাদি মানুষ। তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা এই অভিযোগের কোন ভিত্তি নেই।’

এছাড়াও সিবিআই-এর দেওয়া ২ ঘণ্টার নোটিশের বিরুদ্ধেও তীব্র প্রতিবাদ জানান তিনি। তাঁর সঙ্গে আইএনএক্স কর্তা পিটার ও ইন্দ্রানী মুখোপাধ্যায়ের দেখা হওয়া প্রসঙ্গে কার্তি চিদাম্বরম জানান, তিনি কখনও এদের সঙ্গে দেখা করেননি। কেবলমাত্র জিজ্ঞাসাবাদ চলাকালীন বাইকুল্লা জেলে তাদের সঙ্গে দেখা হয়েছিল বলেও জানান কার্তি।

উল্লেখ্য, সিবিআই এফআইআরএ আইএনএক্স মিডিয়ার আর্থিক তছরুপ মামলায় পি চিদাম্বরম ও কার্তি চিদাম্বরমের নামও রয়েছে৷ কিন্তু পি চিদাম্বরম জানান, তাঁর পুত্র কেবলমাত্র পরামর্শদাতা হিসেবে পারিশ্রমিক পেয়েছিল৷ এর বাইরে কার্তির সঙ্গে আইএনএক্স কর্তাদের কোনও সম্পর্ক নেই বলেও জানান প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী।