নয়াদিল্লি: সম্প্রতি, ভারতের সীমান্তে এসে হাজির হয়েছে একগুচ্ছ চিনা সৈন্য। তাঁবু বানিয়ে ঘাঁটি গেড়ে বসে আছে তারা। প্রায় এক মাস হতে চলেছে সেই সংঘাতের। বিষয়টাকে বেশ গুরুত্ব দিয়েই দেখছে কেন্দ্র। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, অজিত দোভাল বৈঠক পর্যন্ত করেছেন এই বিষয়ে। এমনকি তিন বাহিনীর প্রধানের পরামর্শও নেওয়া হয়েছে।

এর মধ্যে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, তিনি ভারত ও চিনের মধ্যে মধ্যস্থতা করতে প্রস্তুত। ট্যুইট করে সেই বার্তা দিয়েছেন তিনি।

ভারতের সঙ্গে আমেরিকার সম্পর্ক নতুন নয়। স্বাধীনতার পর থেকেই বিপদে-আপদে আমেরিকার সাহায্যপ্রার্থী হয়েছে ভারত। সিআইএ-র (সেন্ট্রাল ইন্টেলিজেন্স এজেন্সি) ভূতপূর্ব গোয়েন্দা ব্রুস রিডেলের বইয়ে উঠে এসেছে আরও এক আকর্ষণীয় তথ্য।

নিরাপত্তা, সন্ত্রাসদমন এবং দক্ষিণ এশীয় পরিস্থিতির ব্যাপারে বিশেষজ্ঞ রিডেল তাঁর বইয়ে লিখেছেন, ১৯৬২ সালের চিনা আগ্রাসনের সময় সাহায্য চেয়ে আমেরিকার তৎকালীন প্রেসিডেন্ট জন ফ্র্যাঙ্কলিন কেনেডিকে চিঠি লেখেন ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরু। চিঠিতে কী লেখা ছিল, তার অংশবিশেষও তুলে ধরেছেন রিডেল।

‘JFK’s Forgotten Crisis: Tibet, the CIA and the Sino-Indian War’ শীর্ষক বইয়ে রিডেল লিখেছেন, জওহরলাল নেহরু তথা ভারতের প্রথম থেকেই এগিয়ে চলার নীতি ছিল। ১৯৬২ সালের সেপ্টেম্বরে চিন ভারত আক্রমণ করে সেই নীতিতে বিঘ্ন ঘটায়। সেই সময় উন্নত দেশগুলির তুলনায় ভারত অনেকটা পিছিয়ে ছিল ঠিকই, তবে ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী অদূরদর্শী ছিলেন না।

প্রতিবেশী দেশের আক্রমণ থেকে বাঁচতে যুদ্ধবিমান যে বিশেষ জরুরি, সে কথা অর্ধশতক আগেই নেহরু বুঝতে পেরেছিলেন। তাই কেনেডিকে লেখা চিঠিতে আকাশপথেই সাহায্য পাঠানোর অনুরোধ জানিয়েছিলেন তিনি। রিডেল লিখছেন, দেশ বাঁচাতে আমেরিকার সহায়তা চেয়ে বিশেষ পন্থা অবলম্বন করলেও আর এক প্রতিবেশী রাষ্ট্রের কোনও ক্ষতি চাননি ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী। তাই চিঠিতে আকাশপথে লড়ার জন্য সাহায্য চাইলেও কেনেডিকে নেহরু লিখেছিলেন, এই বিমানবাহিনী পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ব্যবহৃত হবে না, কেবল চিনের হাত থেকে ভারতকে বাঁচানোর জন্যই ব্যবহার করা হবে।

যদিও রিডেলের দেওয়া এই তথ্যে অভিনবত্ব কিছু নেই৷ ১৯৬২-র যুদ্ধ এবং নেহরুর সেই সময়কার তৎপরতা ও কার্যকলাপের কথা বিস্তারিতভাবে ও প্রাঞ্জল ভাষায় লিখে গিয়েছেন তাঁর জীবনীকার, রাধাকৃষ্ণনের সুযোগ্য পুত্র ঐতিহাসিক সর্বপল্লি গোপাল৷

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV