মুম্বই : চিকিৎসার জন্য আমেরিকায় রয়েছেন ঋষি কাপুর। চারিদিকে খবর রটে গিয়েছে ক্যান্সারে আক্রান্ত অভিনেতা! কিন্তু সত্যি কি তাই? তাঁর অসুস্থতা নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছেন কাপুর পরিবার৷ এমনকি তাঁদের সঙ্গে এখন ঘনিষ্ঠতা বাড়ছে আলিয়া ভাটের৷

তাঁকে ঋষি কাপুরের অসুস্থতা নিয়ে প্রশ্ন করলে এড়িয়ে যান তিনি৷ তবে সম্প্রতি নীতু কাপুরের একটি পোস্টে ধোঁয়াশার মধ্যেও খানিক সত্যতা খুঁজে পেয়েছেন নেটিজেনরা৷ নীতু কাপুর একটি ছবি ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করে ক্যাপশনে যা লিখেছেন তাতেই সন্দেহ আরও প্রবল হয়েছে৷

তিনি লিখেছেন, “আশা করি ২০১৯ সকলের ভালো কাটবে এবং ক্যানসার কেবল একটা জোডিয়্যাক সাইন হয়েই রয়ে যাবে৷” ক্যানসারের কথা তুলতেই নেটিজেনরা এই নিয়ে প্রশ্ন শুরু করা শুরু করেছে৷ ক্যানসার একটা জোডিয়্যাক সাইনের পাশাপাশি রোগও বটে৷ এই রোগ যাতে আর পৃথিবীতে না থাকে এমনই কামনা করেছেন নীতু৷

ঋষি কাপুর যদি ক্যানসারে আক্রান্ত না হতেন তাহলে এই পোস্ট করার কোনও প্রশ্নই উঠত না৷ যদিও রণধীর কাপুর আবারও নীতুর পোস্টের পর জানিয়েছেন তাঁর ভাই ক্যানসারে আক্রান্ত নন৷ তবে কাপুর পরিবারের ঘনিষ্ঠ মহলের খবর, তাঁর ক্যানসারের কারণেই নাকি আলিয়া রণবীরের বিয়েও পিছিয়ে গিয়েছে৷ মাসদুয়েক আগে এই বিষয়ে মুখ খুলেছিলেন ঋষি কাপুররের ভাই রণধীর কাপুর।

তিনি জানিয়েছিলেন, “এটা একদমই বাজে একটি রটনা। বৃহস্পতিবার থেকে ওর চিকিৎসা শুরু হয়েছে। আপাতত ডাক্তারি পরীক্ষা চলছে। যতক্ষণ না সেগুলির ফলাফল আসছে। কি করে বলব ওর কি হয়েছে”। সুতরাং বুঝতেই পারছেন একদিকে যেমন ক্যানসারকে একেবারে উড়িয়ে দিচ্ছেন না কাপুর পরিবার। তেমনই আবার অন্যদিকে বলে চলেছেন রটনা।

অন্যদিকে আমেরিকা যাওয়ার আগে রণবীর ট্যুইট করেছিলেন, “কয়েকদিনের জন্য কাজ থেকে ছুটি নিচ্ছি৷ চিকিৎসার জন্য আমেরিকায় যাচ্ছি৷ সকল শুভাকাঙ্খীর কাছে আবেদন যেন তারা আমায় নিয়ে কোনও চিন্তা না করেন৷ আর অবশ্যই যেন অপ্রয়োজনীয় জল্পনা না রটায়৷ খুব তাড়াতাড়ি ফিরে আসব৷”