নয়াদিল্লি: গত কয়েক বছরে দেশের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ঢেলে সাজিয়েছে ভারত। বিশেষ করে যেভাবে গত কয়েক বছরে চিন এবং পাকিস্তানের দিক থেকে লাগাতার হুমকি এসেছে সেদিকে তাকিয়েই প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাকে ঢেলে সাজানো হয়। আর সেই কারণে এবার একযোগে চিন এবং পাকিস্তানকে একেবারে যোগ্য জবাব দিতে ভারতীয় বিমান বাহিনীর পৃথক উইং তৈরি করার কথা ভাবছে সরকার।

ভারতীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রক সূত্রে খবর, আগামী কয়েকমাসের মধ্যেই আনম্যান্ড এরিয়াল ভিকেল(ইউএভি) সিস্টেম তৈরি হচ্ছে।

কী এই আনম্যান্ড এরিয়াল ভিকেল(ইউএভি) সিস্টেম?

জানা গিয়েছে, এটি এমন এক স্বয়ংক্রিয় বিমান বাহিনী, যার মাধ্যমে বিধ্বংসী ড্রোন, যুদ্ধবিমান, মিসাইল অকেজো করার ক্ষমতাসম্পন্ন যুদ্ধাস্ত্র ব্যবহার করা যাবে রিমোট প্রযুক্তিতে। যুদ্ধে সৌনিক বা যুদ্ধবিমান চালক না পাঠিয়েও কাজ হাসিল করা যাবে।

প্রতিরক্ষামন্ত্রক সূত্রে জানা গিয়েছে, ২০১০ সাল থেকেই এই অত্যাধুনিক ব্যবস্থা ব্যবহার করার দাবি থাকলেও এযাবৎকালে ক্রমশ বাড়তে থাকা সীমান্ত হুমকির কথা মাথায় রেখে নতুন করে এই প্রযুক্তি নিয়ে ভাবা শুরু হয়েছে।

প্রাথমিকভাবে প্রায় ২০০টি যুদ্ধোপযুক্ত ইউসিএভিএস ভারতীয় বিমান বাহিনীতে নিযুক্ত করা হবে বলে খবর।

প্রসঙ্গত, ৪৫ বছর বাদে প্রথম ভারত-চিন সীমান্তে শহিদ হলেন ভারতের সেনা জওয়ান। এক আর্মি অফিসার সহ শহিদ হয়েছেন মোট ২০ জন। স্বাভাবিকভাবেই ক্ষোভের আগুন বাড়ছে দেশ জুড়ে। প্রায় প্রত্যেকদিন সীমান্তে আর্মি অফিসার স্তরের বৈঠক হওয়া সত্বেও পিছু হটছে না চিন।

এই পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখেই লে ও শ্রীনগরে এয়ারবেস পরিদর্শন করে এসেছেন ভারতের বায়ুসেনা প্রধান আরকেএস ভাদুরিয়া। এয়ারবেস গুলিতে প্রস্তুতি কেমন, তা দেখার জন্যও তিনি গিয়েছিলেন বলে মনে করা হচ্ছে। যে কোনও পরিস্থিতিতে যাতে দ্রুত অ্যাকশন নেওয়া যায়, সেই প্রস্তুতিই দেখে এলেন তিনি।

ইতিমধ্যেই ভারত একাধিক ফাইটার জেট সাজাতে শুরু করেছে ওইসব এয়ারবেসে। মনে করা হচ্ছে সীমান্তে পরিস্থিতি আরও খারাপ হলে এই এয়ারবেসগুলিই সবথেকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেবে।

১৫ জুন গভীর রাতে ভারত ও চিনের সেনার চরম সংঘাত হয়। সেখানেই শহিদ হন আর্মি অফিসার সহ ২০ জওয়ান। অন্তত ৭৬ জন সেনা আহত অবস্থঅয় হাসপাতালে ভর্তি বলেও জানা গিয়েছে। এই ঘটনার ঠিক পরেই ১৭ ও ১৮ জুন লে ও শ্রীনগরের এয়ারবেস গুলি পরিদর্শন করে আসেন এয়ার ফোর্স চিফ।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।