ইসলামাবাদ: আনুষ্ঠানিকভাবে পদত্যাগ করলেন নওয়াজ শরিফ। পানামা পেপাপরস কেলেঙ্কারিতে দেশের সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পরেই পদত্যগ করলেন তিনি। শুক্রবার পাক প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে বিবৃতি দিয়ে এই খবর জানানো হয়েছে।

এদিনই সুপ্রিম কোর্টে এই মামলার শুনানি ছিল৷ বেশ কিছুদিন ধরেই জল্পনা-কল্পনা চলছিল৷ পানামা দুর্নীতি মামলায় নওয়াজ শরিফ পদ হারালে কে নেবেন সেই পদের দায়িত্ব, সেই নিয়েও হয়েছে জলঘোলা৷

বছর খানেক আগে পানামায় কয়েক কোটি বেনামী সম্পত্তি থাকার অভিযোগ ওঠে নওয়াজ শরিফ ও তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে। এই মামলায় ডাকা হয়েছে তাঁর মেয়েকেও। পরিস্থিতি যে দিয়ে যাচ্ছিল তাতে অবিলম্বে দেশত্যাগ করার সম্ভাবনা তৈরি হচ্ছিল নওয়াজ শরিফের৷ অবশেষে শুক্রবার সেই মামলায় সুপ্রিম কোর্টের রায়ে প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে বরখাস্ত হয়েছেন শরিফ৷

পাকিস্তানে কোনও বেসামরিক প্রধানমন্ত্রীই তার শাসনামলের পুরো পাঁচ বছর ক্ষমতায় থাকতে পারেননি। নওয়াজ শরিফ নিজেও তৃতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেও পুরো সময় কুর্সিতে থাকতে পারলেন না। পানামা কেলেঙ্কারির শুনানির দিন হিসেবে শুক্রবারের দিকেই যেন তাকিয়ে অগণিত চোখ৷ গত বছর পানামা পেপারস পেপার দুর্নীতি মামলায় জড়িয়ে পড়েন পাক প্রধানমন্ত্রী৷

যদি নওয়াজ শরিফ ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের দুর্নীতির অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হন তাহলে ক্ষমতা থেকেও সরে দাঁড়াতে হতে পারে প্রধানমন্ত্রীকে এ নিয়ে গুঞ্জন ছিলই৷ উল্লেখ্য, পাকিস্তানে মোট তিন বার এই পদে আসীন হন নওয়াজ শরিফ৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।