নয়াদিল্লি: এয়ার ফোর্সের বিমান মহিলারা উড়িয়েছে আগেই। এবার ইতিহাস তৈরির পালা ভারতীয় নৌসেনার। প্রথমবার নৌসেনার বিমান ওড়াবেন মহিলা পাইলট। সোমবারই ইতিহাস গড়তে চলেছেন শিবাঙ্গী।

সোমবারই আনুষ্ঠানিকভাবে ভারতীয় নৌসেনার পাইলট হিসেবে যোগ দেবেন ২৪ বছরের শিবাঙ্গী। পাইলট হিসেবে ট্রেনিং শেষ হয়েছে ২০১৮-তেই। এরপর কোচিতে এনে তাঁকে INAS 550, নাভাল এয়ার স্কোয়াড্রনের জন্য বিশেষ ট্রেনিং দেওয়া হয়।

শিবাঙ্গীকে Dornier aircraft ওড়ানোর দায়িত্ব দেওয়া হবে। যে এয়ারক্রাফট মূলত নৌবাহিনীর জিনিসপত্র বহন করে। এছাড়া উদ্ধারকাজেও যেতে হবে এই এয়ারক্রাফটকে।

বিহারের মুজফফরপুরে বেড়ে ওঠা শিবাঙ্গী আকাশে ওড়ার স্বপ্ন দেখেছিলেন অনেক ছোটবেলাতেই। তখন বছর দশেকের শিবাঙ্গী দাদুর কাছে গিয়েছিলেন। কোনও এক মন্ত্রী সভা করছিল। দাদুর হাত ধরে সেখানেই গিয়েছিলেন শিবাঙ্গী। দেখেছিলেন হেলিকপ্টারে এলেন মন্ত্রী। হেলিকপ্টারের চালককে দেখে উৎসাহিত হন শিবাঙ্গী।

এরপর সিকিম মনিপাল ইউনিভার্সিটিতে ইঞ্জিনিয়ারিং পড়েন তিনি। পরে জয়পুরে ‘মালব্য ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি’তে পড়াশোনা করেন। সেখানেই এসেছিলেন নৌসেনার রিক্রুটমেন্ট অফিসাররা। তাঁরা প্রেজেন্টেশন দেখান কলেজে। এতে আরও উৎসাহ বাড়ে শিবাঙ্গীর।

শিবাঙ্গী বলেন, ‘স্বপ্ন সত্যি হল। গর্বের মুহূর্ত। এই অনুভূতি ভাষায় বর্ণনা করতে পারব না।’

এর আগে শুধু নৌবাহিনীর মেডিক্যাল সার্ভিসে যোগ দিতে পারতেন মহিলারা। সম্প্রতি পাইলট পদেও মহিলাদের নিয়োগ করা হচ্ছে। এয়ার ফোর্সে মহিলা পাইলট নিয়োগ করা হয়েছে আগেই।