কলকাতা: নোভেল করোনা ভাইরাসের মোকাবিলায় এবার বাংলার পাশে ভারতীয় নৌসেনা। যুদ্ধজাহাজেই আইসোলেশন ওয়ার্ড তৈরি করা হয়েছে। কলকাতা বন্দরে ঘাঁটি গেড়ে থাকা ভারতীয় নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ আইএনএস নেতাজি সুভাষে তৈরি হয়েছে আইসোলেশন ওয়ার্ড।

রাজ্যের উপকূলে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা নৌসেনাকর্মীদের কেউ যদি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হন তবে তাঁকে কলকাতা বন্দরে নৌসেনার ওই জাহাজে তৈরি হওয়া এই আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাখার ব্যবস্থা করা হবে।

রাজ্যের উপকূলে নজরদারি চালায় নৌসেনার একাধিক জাহাজ। এই মুহূর্তে বেশ কিছু জাহাজ ঘাঁটি গেড়েছে কলকাতা বন্দরের আশেপাশেই। সেই সব জাহাজে থাকা সেনাকর্মীদের নিয়মিত শারীরিক পরীক্ষা চলছে। যুদ্ধজাহাজগুলিতে পাঠানো হচ্ছে মেডিক্যাল টিম।নৌসেনাকর্মীদের মধ্যে করোনার উপসর্গ দে যাচ্ছে কিনা, সেটাও পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে। আইসোলেশন ওয়ার্ড পুরোপুরি তৈরি রাখা হয়েছে। কোনও নৌসেনা কর্মী করোনা আক্রান্ত হলেই পাছানো হবে সেই ওয়ার্ডে।

এদিকে, করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া রুখতে ইতিমধ্যেই কলকাতা বন্দরে ঘাঁটি গেড়ে থাকা জাহাজগুলির নৌসেনাদের ডাঙায় নামা নিষিদ্ধ হয়েছে। অত্যাবশ্যকীয় পণ্য স্যানিটাইজ করার পরেই পাঠানো হচ্ছে যুদ্ধজাহাজগুলিতে।

নোভেল করোনার সংক্রমণ রুখতে প্রয়োজনীয় সব পদক্ষেপ করেছে নৌসেনা। অন্যান্য ব্যবস্থার পাশাপাশি নৌসেনাকর্মীদের মাস্ক ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা। কারও শরীরে করোনার উপসর্গ দেখা দিলেই দ্রুত তা চিকিৎসকদের নজরে আনার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

দেশে ক্রমেই বাড়ছে করোনার সংক্রমণ। শুক্রবার বিকেলে স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী গোটা দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৬৪১২।

করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা ১৯৯। গত ২৪ ঘণ্টায় কোভিড-19-এর সংক্রমণের জেরে দেশে ৩৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। একইসঙ্গে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের বিভিন্ন প্রান্তে নতুন করে ৬৭৮ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।