নয়াদিল্লি:  প্রাকৃতিক গ্যাসের দাম কমতে চলেছে ২৫ শতাংশ। আন্তর্জাতিক বাজারে ব্যাপকভাবে দামের পতন ঘটেছে। আর সেই কারণেই ভারতের মাটিতে প্রাকৃতিক গ্যাসের দাম অনেকটাই কমতে চলেছে। বিভিন্ন সূত্রে জানা গিয়েছে, আগামী ১ এপ্রিল থেকে প্রতি মিলিয়ন ব্রিটিশ থার্মাল ইউনিটে প্রায় আড়াই ডলার কমতে পারে গ্যাসের দাম। এর ফলে ছ’মাসের মধ্যে দ্বিতীয়বার কমতে চলেছে প্রাকৃতিক গ্যাসের দাম। আর তা হলে সেটাই হবে গত আড়াই বছরের সর্বনিম্ন।

আন্তর্জাতিক বাজারে দামের তারতম্যের ভিত্তিতে প্রতি ছ’মাস অন্তর গ্যাসের দাম নির্ধারিত হয়। সেইমতো বর্তমানে প্রতি মিলিয়ন ব্রিটিশ থার্মাল ইউনিট গ্যাসের দাম ৩.২৩ ডলার। একইসঙ্গে, কমতে পারে দুর্গম বেসিন থেকে উত্তোলন করা গ্যাসের দামও। এই প্রাকৃতিক গ্যাস রাসায়নিক সার তৈরি, বিদ্যুৎ উৎপাদনের পাশাপাশি সিএনজিতে পরিবর্তন করে অটোমোবাইল শিল্পে জ্বালানি এবং রান্নার গ্যাস হিসেবে ব্যবহৃত হয়। প্রসঙ্গত, দেশে প্রয়োজনীয় গ্যাসের সিংহভাগ উত্তোলন করে ওএনজিসি এবং অয়েল ইন্ডিয়া লিমিটেড (ওআইএল)।

অন্যদিকে সূত্রের খবর, আগামী ১ এপ্রিল থেকে প্রতি মিলিয়ন ব্রিটিশ থার্মাল ইউনিট ৩.০৬ ডলার হয়ে যাবে, যা বর্তমানে ২.৮৯ ডলার৷ আমেরিকা, রাশিয়া, কানাডার মতো গ্যাস সারপ্লাস দেশের অ্যাভারেজ রেটের ওপর ভিত্তি করে প্রতি ছ’মাস অন্তর প্রাকৃতিক গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি করা হয়৷

প্রতি এমএমবিটিইউ মূল্য ৩.০৬ ডলার মূল্য আগামী ১ এপ্রিল থেকে আগামী ৬ মাস পর্যন্ত থাকবে৷

তবে এই মূল্য ২০১৬ সালের এপ্রিল-সেপ্টেম্বরের পরে সর্বাধিক হতে চলেছে৷ তবে মূল্য বৃদ্ধির ফলে ওএনজিসি এবং রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের আমদানি বাড়বে, কিন্তু পিএনজি এবং সিএনজির মূল্য বৃদ্ধি পাবে৷ বৃদ্ধি পাবে ইউরিয়া এবং বিদ্যুতের মূল্যও৷