স্বাগত নতুন বছর৷ ইংরাজি নববর্ষে শুভেচ্ছা৷ বর্ষবরণে মিশে থাকে আগামীর পথ চলার ভাবনা৷ এই লক্ষ্যে Kolkata 24×7 নতুন করে ভাবছে৷ এতে মিশে আছে ভবিষ্যৎ দেখার ইচ্ছে৷ আমরা এগিয়ে চলেছি, তাই পিছন ফিরে দেখা নয় আগামীকেই স্বাগত জানাচ্ছি৷ ২০১৮ সালের সম্ভাব্য কিছু ঘটনা তুলে ধরছি৷ বাংলা সংবাদমাধ্যমে এ এক ব্যতিক্রমী প্রচেষ্টা৷ দেশ থেকে বিদেশ, খেলা থেকে মেলা সমস্ত বিষয়ের সব খবর এক ক্লিকে৷ এই প্রতিবেদনে জাতীয় বিভাগের দশদিক

১. প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী রাহুল


পরিণত হয়েছেন অনেক৷ তাঁর বক্তব্য এখন সংবাদ শিরোনামও হয়৷ সদ্য দলে মায়ের স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন রাহুল গান্ধী৷ কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি এবার প্রধানমন্ত্রী পদের অন্যতম দাবিদার৷ দেশে কংগ্রেসের হাল বেহাল হলেও, ইউপিএ-র প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী হয়ে ২০১৮ থেকে প্রচারে ঝড় তুলতে পারেন রাহুল৷

২. মোদী ম্যাজিক কি টিকবে?


২০১৭-র শেষে গুজরাত বিধানসভা নির্বাচনে আশানুরূপ ফল হয়নি বিজেপির৷ নিজের রাজ্যে টেনেটুনে পাশ করে চিন্তায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও৷ ২০১৪ সাল থেকে যে মোদী ম্যাজিক দেখে অভ্যস্ত ভারতবাসী, এর পর তা কি আর অটুট থাকবে? বছর শেষের সেই প্রশ্নরই উত্তরই মিলতে পারে ২০১৮ সালে৷

৩. আধারে কি বাড়বে আঁধার?


ইতিমধ্যেই আধার নম্বর আমাদের রোজনামচায় ঢুকে পড়েছে৷ মোবাইল থেকে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট, সব কিছুতেই আবশ্যিক হচ্ছে আধার৷ আগামী বছর আরও অনেক পরিষেবায় বাধ্যতামূলক হতে পারে আধার-সংযোগ৷ ফলে সমস্যা বাড়তে পারে ভারতবাসীর৷ সুপ্রিম কোর্টের সাংবিধানিক বেঞ্চ এখনও আধার মামলার রায় দেয়নি৷ সেই রায় শেষপর্যন্ত কী হয়, ২০১৮-তে সেদিকেও চোখ থাকবে৷

৪. অযোধ্যার মাটিতে ফের জন্মাবেন রাম


রাম মন্দির নির্মাণের অ্যাকশন প্ল্যান বাস্তবায়িত হতে পারে ২০১৮ সালে৷ কেন্দ্রে মোদী, রাজ্যে যোগী জুটির ফায়দা তুলতে পারে রাম মন্দির সমর্থকরা৷ সুযোগ হাতছাড়া না করে আসরে নেমে পড়তে পারে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের মতো কট্টরবাদী হিন্দু সংগঠনগুলি৷

৫. গোঁড়ামির আকাশে লাভ জেহাদের মেঘ


প্রেম-ভালবাসাকে কখনও ধর্মের বেড়াজালে বাঁধা সম্ভব হয়নি৷ কিন্তু এই সারসত্যটি বুঝতে নারাজ হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলি৷ তাই লাভ জেহাদ ঠেকাতে বারবার সচেষ্ট হচ্ছে একাধিক সংগঠন৷ ২০১৮ সালে এই সমস্যা বড় আকার ধারণ করতে পারে৷ ভারতের অনেক সেলিব্রিটিও ভিনধর্মের বিয়ে করেছেন৷ তাঁরাও চলে আসতে পারেন হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলির আক্রমণের লক্ষ্যে৷

৬. অসহিষ্ণুতা


২০১৪ সালে বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর অসহিষ্ণুতা বিতর্ক সবচেয়ে বেশি মাথচাড়া দিয়েছে৷ দেশের নানা প্রান্তে বেশ কয়েকটি এমন ঘটনা সংবাদ শিরোনামে এসেছে৷ আগামী বছরও জারি থাকতে পারে সেই বিতর্ক৷ দেশে গেরুয়া শিবিরের শক্তিবৃদ্ধি অব্যাহত থাকলে ২০১৮ সালে অসহিষ্ণুতার আরও অনেক অভিযোগ উঠতে পারে৷

৭. ভারতে কি ফিরবেন দাউদ


২০১৮ সালে ভারতে ফিরতে পারেন মাফিয়া ডন দাউদ ইব্রাহিম৷ একমাত্র ছেলের মৌলানা হয়ে যাওয়া বা ছোটা শাকিলের মৃত্যু, সব মিলিয়ে হতাশ দাউদ এবার ভারতে ফিরতে পারেন বলে বছর শেষে সবচেয়ে প্রাসঙ্গিক এই জল্পনা৷আর দাউদকে এনে মুম্বই বিস্ফোরণ মামলার শুনানি আবার শুরু করাতে পারলে লাভ বিজেপিরই৷ জাতীয়তাবাদের ধুয়ো তুলে ২০১৯-এর লোকসভা ভোটে ফায়দা তোলার চেষ্টা করতে পারেন মোদী৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।