মুম্বই: সঞ্জয় দত্তের জীবনের ওঠাপড়া সম্পর্কে তাঁর ভক্তরা অবহিত। কখনও মাদকের নেশায়, কখনও আগ্নেয়াস্ত্র বাড়িতে রাখায়, খবরের শিরোনামে বার বার উঠে এসেছেন তিনি। তাঁর আত্মজীবনী নিয়ে বলিউডে ছবিও হয়ে গিয়েছে। তবে ছবির পর্দাতেও তেমনই ভক্তদের মুগ্ধ করেছেন। কিন্তু জানেন কি সঞ্জয়কে তাঁর মা তথা ৭ এর দশকের জনপ্রিয় অভিনেত্রী সমকামী ভেবেছিলেন।

অবাক হচ্ছেন? কিন্তু ইয়াসের উসমান-এর লেখা সঞ্জয় দত্তের বায়োগ্রাফি ‘দ্য ক্রেজি আনটোল্ড স্টোরি অফ বলিউড’স ব্যাড বয়’ থেকে এমনই জানা যাচ্ছে। এই তথ্য লেখককে জানিয়েছেন সঞ্জয়েরই দুই বোন প্রিয়া ও নম্রতা। প্রিয়া বলেছেন, আমি শুনেছিলাম মা তাঁর বন্ধুকে বলছেন, সঞ্জয় বন্ধুদের সঙ্গে ঘর বন্ধ করে থাকে কেন? আশা করছি ও সমকামী নয়।

সঞ্জয় দত্তের কিছু কাজে এতই বিরক্ত হতেন নার্গিস যে মাঝে মধ্যে মায়ের হাতে মার পর্যন্ত খেয়েছেন তিনি। নম্রতা বলছেন, মা এক এক সময় খুব রেগে যেত সঞ্জয়ের কাজকর্ম দেখে। তাই মাঝে মধ্যে ওকে বকুনি দিতেন এবং জুতো ছুড়েও মারতেন।

সঞ্জয় দত্ত এক সময়ে মাদকের দুনিয়ায় রীতিমতো ভেসে গিয়েছিলেন। কিন্তু এই সত্যিটা বিশ্বাস করতেন না নার্গিস কিছুতেই। বরং তাঁর ধারণা ছিল, সঞ্জয় মদ বা কোনও রকমের মাদক সেবন করতেন না। যাঁরা নার্গিসকে সাবধান করতে এসেছিলেন তাঁদের কথাতেও গুরুত্ব দেননি।

নার্গিস সব সময়ে সঞ্জয়কে নম্র ভদ্র হতে শিখিয়েছিলেন। তিনি বলতেন যতই বড়ই হও বিনয়ী থেকো। নিজের চরিত্র সবসময়ে নিয়ন্ত্রণে রেখো। তাই নার্গিসের মৃত্যুর পরে খুবই ভেঙে পড়েছিলেন সঞ্জয়।

প্রসঙ্গত, বর্তমানে মান্যতা দত্তর সঙ্গে বিয়ে করে সুখে সংসার করছেন সঞ্জয় দত্ত।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।