কলকাতা: চোখ রাঙাচ্ছে করোনা। গোটা দেশ করোনার গ্রাসে। মারাত্মক পরিস্থিতি বাংলাতেও। নির্বাচনের বাংলায় এখনই সভা, সমাবেশ বাতিলের দাবি করছেন চিকিৎসক সমাজের একটি বড় অংশ। তবে বিজেপি সূত্রে জানা গিয়েছে, এখনই এরাজ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর পূর্ব নির্ধারিত সভাগুলি বাতিলের ভাবনা নেই। তবে সভা বাতিল না হলেও দু’দিনের বদলে একদিনেই সব সভা সারবেন মোদী। আগামী তিন দফার নির্বাচনে দু’দিনে চারটি সভা করার কথা ছিল মোদীর৷ তবে করোনা পরিস্থিতির জেরে এবার একদিনেই ওই চারটি সভা করবেন প্রধানমন্ত্রী৷ আগামী ২৩ এপ্রিল রাজ্যে একদিনে চারটি সভা সারবেন নমো।

একুশের ভোট প্রেস্টিজ ফাইট। বাংলা দখলে মরিয়া গেরুয়া শিবির। করোনাকালেও বঙ্গে নির্বাচনী প্রচারে এতটুকু ফাঁক রাখতে চায় না পদ্ম শিবির। গোটা দেশ-সহ বাংলাতেও করোনার সংক্রমণ মারাত্মক আকার ধারণ করায় নির্বাচনী সভা, সমাবেশে রাশ টানার কথা বলতে শুরু করেছেন চিকিৎসক সমাজ থেকে শুরু করে বিশেষজ্ঞরা। ইতিমধ্যেই রাজ্যের একাধিক রাজনৈতিক দল সভা, সমাবেশে কাটছাঁট করেছে।

করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে বড় সভা বাতিল করেছে বামেরা। তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও নির্বাচনী প্রচারে কাটছাঁট শুরু করে দিয়েছেন আজ থেকেই। সোমবার উত্তর দিনাজপুরের কালিয়াগঞ্জে নির্বাচনী জনসভা ছিল তৃণমূলের। সেই সভা মাত্র ১৫ মিনিটে সেরেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। করোনা পরিস্থিতিতে তিনি আর বেশিক্ষণ ধরে সভা করবেন না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন। একইসঙ্গে রাজ্যে করোনার বাড়বাড়ন্তে বিজেপিকেই দায়ী করেছেন তৃণমূলনেত্রী।

এরাজ্যের নির্বাচনী বৈতরণী পেরোতে মোদী-মুখেই ভরসা রাজ্য বিজেপির। প্রথম দফার ভোটের আগে থেকে এখনও পর্যন্ত রাজ্যের জেলায়-জেলায় একগুচ্ছ সভা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। নমোর পাশাপাশি অমিত শাহ থেকে শুরু করে রাজনাথ সিং, জেপি নাড্ডা, স্মৃতি ইরানি-সহ বিজেপির একাধিক কেন্দ্রীয় নেতা দফায়-দফায় সভা করেছেন বাংলায়। নির্বাচনের প্রথম কয়েকটি পর্বে থাকলেও উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ করোনা আক্রান্ত হওয়ায় আপাতত বঙ্গের প্রচারে নেই।

করোনা পরিস্থিতিতে নির্বাচনী প্রচারে রাশ টানা ছাড়া বিকল্প পথ নেই বলে সওয়াল তুলছেন বিশেষজ্ঞরা। রাজ্যে ইতিমধ্যেই পাঁচ দফার ভোট শেষ। এখনও তিন পর্বের নির্বাচন বাকি। করোনার চোখ রাঙানির আবহে বাংলায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাকি সভাগুলি হওয়া নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল। তবে বিজেপি সূত্রে জানা গিয়েছে, কোভিড প্রোটোকল মেনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সব সভাই হবে বাংলায়। তবে দু’দিনের বদলে আগামী ২৩ এপ্রিলই রাজ্যে চারটি সভা সেরে দিল্লির বিমান ধরবেন মোদী।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.