নয়াদিল্লি: প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর থেকেই প্রত্যেক বছর স্বাধীনতা দিবসে লালকেল্লায় দাঁড়িয়ে দেশবাসীর উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। প্রতিবারই তাঁর বক্তব্য কোনও না কোনও চমক থাকে। দ্বিতীয়বার নির্বাচনে জিতে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর এবারই প্রথম ভাষণ দেবেন তিনি। এই নিয়ে একটানা ষষ্ঠবার ভাষণ দিতে চলেছেন তিনি। আর এবারের ভাষণে বাজপেয়ীর রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলবেন তিনি।

এই স্বাধীনতা দিবসের ভাষণ থেকে ‘স্বচ্ছ ভারত’ কিংবা ‘ আয়ুস্মা ভারত’-এর মত উদ্যোগের কধা ঘোষণা করেছেন মোদী। তাই তাঁর ভাষণের জন্য অপেক্ষা করে থাকেন দেশবাসী। এমনকি গত বছর গগণায়ন বা ভারতের মহাকাশে মানব অভিযানের কথাও ঘোষণা করেন এই লালকেল্লা থেকেই।

এবারের ভাষণেও চমকের জন্য অপেক্ষা করে আছেন অনেকে। দ্বিতীয়বার লোকসভায় জিতে ফিরেছেন তিনি। সেকথা অবশ্যই তাঁর ভাষণে থাকবে বলে আশা করা যায়। এছাড়া কাশ্মীর পুনর্গঠন বিল পাশ হয়েছে সদ্য। তাই সই বিষয়টাও উঠে আসবে তাঁর বক্তব্যে।

বিজেপির একমাত্র প্রধানমন্ত্রী বাজপেয়ী, যিনি টানা ছ’বার স্বাধীনতা দিবসের ভাষণ দিয়েছিলেন। সেই রেকর্ডই এবার ছুঁয়ে ফেললেন মোদী।

এবার মোদীর ভাষণের মূল বিষয় হবে ‘নিউ ইন্ডিয়া’ বা নতুন ভারত। আর সেই নতুন ভারতে নজিরবিহীনভাবে প্রধানমন্ত্রীকে সাহায্য করবেন তিন মহিলা বায়ুসেনা অফিসার। এই অনুষ্ঠানের জন্য ৩৫০০ ছাত্রীকে নিয়ে আসা হয়েছে দেশের ৪১টি সরকারি স্কুল থেকে। এসেছে ৫০০০ ছাত্র ও ৭০০ এনসিসি ক্যাডেট।

লালকেল্লার তিন কিমি ব্যাসার্ধের মধ্যে জঙ্গি হামলার বিষয়ে সতর্ক করা হয়েছে দিল্লি পুলিশকে। দিল্লির ১৭টি জায়গাকে স্পর্শকাতর বলেও চিহ্নিত করা হয়েছে। পাশাপাশি দেশের সব বড় বিমানবন্দরগুলিতেও সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

গোয়েন্দা রিপোর্ট বলছে, দেশে ইতিমধ্যেই আফগান পাসপোর্ট নিয়ে দু থেকে চার জঙ্গি ভারতে প্রবেশ করে থাকতে পারে। দিল্লির পার্শ্ববর্তী রাজ্যগুলিকে সতর্ক করে বলা হয়েছে, দিল্লিগামী বাসে বিশেষ নজরদারি চালাতে।