বারাণসী: সোমবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তাঁর সংসদীয় কেন্দ্র বারাণসীতে সফর সারেন। কার্তিক পূর্ণিমার শুভ তিথিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ ক্রুজে চড়ে চেসসিংঘাটে একটি লেজার শো উপভোগ করেন। সেই ক্রুজ সফরকালে দেখা যায় শিব ভক্তিতে মগ্ন রয়েছেন নরেন্দ্র মোদী। সেই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ারও করেছেন তিনি।

লেজার শো দেখার পরে প্রধানমন্ত্রী মোদী সন্ত রবিদাস ঘাটে পৌঁছন। সেখানে সন্ত রবিদাসের মূর্তিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এরপর সারনাথে যান মোদী। এখানেও প্রধানমন্ত্রীকে দেখানো হয় লেজার এবং সাউন্ড শো। এই শোতে কণ্ঠ দেন অমিতাভ বচ্চন।

উল্লেখ্য এদিন বারাণসী থেকে প্রয়াগরাজ হাইওয়ের উদ্বোধন করেন মোদী। ক্রুজে চড়ার আগে কাশীর রাজঘাট থেকে প্রধানমন্ত্রী কাশীবাসীদের উদ্দেশ্যে বলেন, কাশীর ভক্তির শক্তি কেউ পরিবর্তন করতে পারে না। তিনি জানিয়েছেন, কাশী বিশ্বনাথ ধাম প্রকল্পটি ২০২১ সালের অগস্টের মধ্যে শেষ হবে।

মোদী বলেন, ১০০ বছর আগে কাশী থেকে মা অন্নপূর্ণার যে মূর্তি চুরি হয়েছিল, তা আবার ফিরে আসবে। মা অন্নপূর্ণা আবার নিজের বাড়িতে ফিরে আসছেন। তিনি বলেন, আমাদের দেবদেবীদের এই প্রাচীন মূর্তিগুলি আমাদের বিশ্বাসের পাশাপাশি আমাদের অমূল্য ঐতিহ্যের প্রতীক।

এদিন বারাণসীর মঞ্চ থেকেও নাম না করে বাংলাকে নিশানা করেন প্রধানমন্ত্রী। কেন্দ্রের কিষাণ সম্মান নিধি নিয়ে মোদী বলেন, কিছু রাজ্য কেন্দ্রের এই প্রকল্প তাদের রাজ্যে চালু করেনি। এই প্রকল্পের আওতায় বছরের তিনবার কৃষকদের টাকা দেওয়া হয়। এভাবে বছরে মোট ১ লাখ কোটি টাকা দেওয়া হয় দেশের কৃষকদের। ওই প্রকল্প চালু না করায় বঞ্চিত হচ্ছেন লাখ লাখ কৃষক, এমনটাই জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।