স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: ‘দেশবাসী আর তাকে চাইছে না, তা বুঝে গিয়েছে মোদী নিজেও, ওর শরীরীভাষায় স্পষ্ট । উত্তর বারাকপুরে দলীয় কার্যালয় উদ্বোধন করে এমনই বললেন ভাটপাড়ার বিধায়ক তথা চেয়ারম্যান অর্জুন সিং৷

তিনি এদিন আরও বলেন ‘প্রধানমন্ত্রী পদে মানু্ষের আস্থা মমতা বন্দোপাধ্যায়ের প্রতি, সেই আস্থার বিষয়টি ভালভাবেই বুঝে গিয়েছে বিজেপি নেতারা । মানুষের চাহিদার বিষয়টি কার্যতঃ মেনে নিয়েই দিলীপ ঘোষ বলেছেন মমতা বন্দোপাধ্যায় প্রধান মন্ত্রী হওয়ার যোগ্যতম ব্যক্তি। তবে ওনার বলা বা না বলায় কিছু আসে যায় না। কারন মিথ্যাবাদী নরেন্দ্র মোদীকে কেউ চাইছে না। ওদের দলের মধ্যেও এই নিয়ে মতভেদ শুরু হয়েছে। মোদীর শরীরীভাষাই বলে দিচ্ছে বিজেপি আর ক্ষমতায় আসছে না।’

রবিবার উত্তর ২৪ পরগনার উত্তর বারাকপুরে দলীয় কার্যালয় উদ্বোধন করেন ভাটপাড়ার তৃণমূল বিধায়ক৷ আসন্ন লোকসভা ভোটের আগেই উত্তর বারাকপুরে দলের সাংগঠনিক শক্তি বৃদ্ধি করতে উত্তর ব্যারাকপুর পৌরসভা এলাকার তেইশ নম্বর ওয়ার্ডে উদ্বোধন হল তৃণমূল কংগ্রেসের নতুন কার্যালয়ের । এই কার্যালয় উদ্বোধন করেন অর্জুন সিং।

উত্তর বারাকপুরের মণিরামপুরে তৃণমূল কংগ্রেসের নতুন এই দলীয় কার্যালয় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উত্তর ব্যারাকপুর পুরসভার পৌরপ্রধান মলয় ঘোষ, টিটাগড় পুরসভার কাউন্সিলর মনীষ শুক্লা, উত্তর বারাকপুর পুরসভার কাউন্সিলর কমলেশ উকিল, দেবাশিস দে সহ তৃণমূল কংগ্রেসের স্থানীয় নেতৃত্ব৷

অর্জুন সিং সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে জানান,’পার্টি অফিস শুধু দলের কাজের জন্য নয়, মানুষের কাজ করার জন্য পার্টি অফিসের দরকার পড়ে। মানুষ বিপদে পড়লে সবার আগে পার্টি অফিসে ছুটে আসে। এখানে পার্টি অফিস ছিল না। নতুন একটা দলীয় কার্যালয় তৈরী হল, এটা দলের পক্ষে খুব ভালো হল। মানুষের পক্ষে খুব ভালো হল।’

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।