নয়াদিল্লি: নির্বাচনের আগে সবার অলক্ষ্যে লঞ্চ করা হয়েছে ‘নমো টিভি’ নামে একটি চ্যানেল। আর সেখানে নরেন্দ্র মোদী ও বিজেপি সংক্রান্ত অনুষ্ঠানের সম্প্রচার চলছে। এইভাবে বিজেপি ভোটারদের প্রভাবিত করার চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ তুলেছেন বিরোধীরা।

গত ৩১ মার্চ সম্প্রচার শুরু হওয়ার ৩-৪ দিনের মধ্যেই নমো টিভিকে ঘিরে বিতর্ক তুঙ্গে উঠেছে। ইতিমধ্যেই এই চ্যানেল সংক্রান্ত রিপোর্ট চেয়েছে নির্বাচন কমিশন।

এসবের মধ্যেই প্রতিক্রিয়া দিল ‘টাটা স্কাই’। টুইট করে সংস্থার তরফে বৃহস্পতিবার বলা হয়েছে নমো টিভি হল হিন্দি সম্প্রচারিত একটি নিউজ চ্যানেল। এটি রাজনীতির সাম্প্রতিক খবর পরিবেশন করে থাকে। নিজেদের ট্যুইটে টাটা স্কাই আরও জানিয়েছে সদ্য চালু হয়েছে বলে সমস্ত গ্রাহকের কাছেই নমো টিভি পৌঁছে দেওয়া হয়েছে, সাবস্ক্রাইব করা না থাকলেও এই টিভি দেখা যাচ্ছে। আর তাই সেটি ডিলিট করে দেওয়ার সুযোগ সংস্থার কাছে নেই।

কেন্দ্রীয় সরকারের তথ্যসম্প্রচার মন্ত্রক থেকে নমো টিভি সম্পর্কে জানতে চেয়েছে নির্বাচন কমিশন। বিরোধীদের দাবি ভোটারদের প্রভাবিত করতে নির্বাচনী বিধিকে তোয়াক্কা করেনি বিজেপি। টাটা স্কাইয়ের পাশাপাশি অন্য ডিটিএইচ পরিষেবাতেও চ্যানেলটি দেখা যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর নাম এবং পদবীর আদ্যাক্ষর ছাড়াও তাঁর ছবি লোগো হিসেবে ব্যবহার হচ্ছে। কিন্তু এই চ্যানলের মালিকানা নিয়ে কিছুটা সংশয় আছে। চ্যানেলটি উদ্বোধনের প্রায় সঙ্গে সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর টুইটার অ্যাকাউন্টে সেটির লোগো পোস্ট হয়। সকলকে চ্যানেলে তাঁর অনুষ্ঠান দেখার আহ্বানও জানান প্রধানমন্ত্রী।

সেদিন বিকেল ৫ টা নাগাদ কয়েকলক্ষ ‘চৌকিদার’-কে নিয়ে ম্যায় ভি চৌকিদার অভিযানের আরেকটি অনুষ্ঠানে ভাষণ দেন মোদী।

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রককে দেওয়া চিঠির পাশাপাশি দূরদর্শনকেও চিঠি পাঠিয়েছে নির্বাচন কমিশন। জানতে চাওয়া হয়েছে কীভাবে গত ৩১ মার্চ নরেন্দ্র মোদীর ‘ম্যায় ভি চৌকিদার’ শীর্ষক অনুষ্ঠান দেখানো হয়েছে।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা