মুম্বই: কঙ্গনা একসময় সংবাদমাধ্যমের সামনে বলেছিলেন তিনি মাদক নিয়েছেন। এই প্রসঙ্গে এবার মুখ খুললেন অভিনেত্রী তথা কংগ্রেস নেত্রী নাগমা। অতীতে মাদক নেওয়ার স্বীকারোক্তি থাকার পরেও কেন নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো কঙ্গনাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে না তা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন তিনি।

এনসিবি যা তদন্ত করছে তা দ্রুত সংবাদমাধ্যমের কাছে ছড়িয়ে পড়ছে। এই বিষয়ে নাগমা বলেছেন যে এনসিবি ইচ্ছে করে বলিউডের প্রথম সারির অভিনেত্রীদের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে চাইছে।তাই তদন্ত চলাকালীন সমস্ত তথ্য তারা সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে শেয়ার করছে।

নাগমা টুইট করেছেন, “এনসিবি কেন কঙ্গনা রানাউতকে সমন করছে না যিনি নিজেই মাদক নেওয়ার কথা স্বীকার করেছিলেন। অন্য অভিনেত্রীদের যদি হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের উপর ভিত্তি করে সমন করা যায়, তাহলে কঙ্গনাকে কেন জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে না? এ তো দ্বিচারিতা। শুধুমাত্র মহিলা অভিনেতাদের ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্য তদন্তের সমস্ত তথ্য সংবাদমাধ্যমের কাছে ছড়িয়ে দেওয়া কি এনসিবির কর্তব্য?”

দীপিকা পাডুকোন, সারা আলি খান, রকুল প্রীত, শ্রদ্ধা কাপুর কে এনসিবি সমন করার পরেই নাগমা এই টুইট করেন। সম্প্রতি কঙ্গনা রানাউতের একটি পুরনো ভিডিও সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হয়। সেই ভিডিওতে কঙ্গনা নিজেই স্বীকার করেছেন যে একসময় তিনি মাদকাসক্ত হয়ে পড়েছিলেন। ভিডিওটি এবছর মার্চ মাসে ইনস্টাগ্রামে কঙ্গনা শেয়ার করেছিলেন।

ভিডিওতে কঙ্গনা বলছেন, “বাড়ি থেকে পালানোর দেড় বছরের মধ্যে আমি একজন ফিল্ম তারকা হয়ে উঠি, একজন ড্রাগ অ্যাডিক্ট হয়ে যাই। আমার জীবনে তখন অনেক কিছু ঘটছিল। তখন এমন কয়েকজন মানুষের পাল্লায় পড়ে ছিলাম যে আমার জীবনে ভয়ংকর সব ঘটনা ঘটেছিল।”

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।