নয়াদিল্লি: করোনাভাইরাসের মোকাবিলায় দেশজুড়ে চলছে লকডাউন। এই আবহেই সম্প্রতি দিল্লির নিজামুদ্দিনের জমায়েত অংশগ্রহণকারীদের থেকে সংক্রমণ আরও ছড়ানোর আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। এই বিষয়টি নিয়েই এবার দলীয় নেতা-কর্মীদের সতর্ক করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। করোনার সংক্রমণ ইস্যুকে যাতে কোনওভাবেই সাম্প্রদায়িক রং লাগানো না হয় সেব্যাপারে নেতা-কর্মীদের আগেভাগে সতর্ক করে দিয়েছেন নাড্ডা।

দেশজুড়ে ক্রমেই বাড়ছে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা। মার্চে দিল্লির নিজামুদ্দিনের তবলিঘি জমায়েতে অংশ নেওয়া চারশো জনের শরীরে ইতিমধ্যেই করোনার জীবাণু মিলেছে। এণনকী ইতিমধ্যেই আক্রান্ত ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। নিজামুদ্দিনে জমায়েতকারীদের অনেককেই চিহ্নিত করে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। বাকিদেরও খোঁজ চলছে।

এদিকে, নিজামুদ্দিনের ঘটনার পর স্বভাবতই দেশজুড়ে বেড়েছে উদ্বেগ। এই অবস্থায় দলের নেতা-কর্মীদের নতুন করে সতর্ক করতে আসরে নেমেছেন খোদ বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি। নিজামুদ্দিনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে কোনও সাম্প্রদায়িক বক্তব্য থেকে দূরে থাকতে কর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন নাড্ডা। নিজামুদ্দিনের ঘটনা নিয়ে দলের কেউ উস্কানিমূলক মন্তব্য করলে তার বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও জানিয়েছেন জেপি নাড্ডা।

দেশের বিভিন্ন প্রান্তে থাকা বিজেপি নেতা-কর্মীদের কোভিড-19-এর মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী মোদীর উদ্যোগকে সমর্থন করতে নির্দেশ দিয়েছেন বিজেপি সভাপতি। ওয়াকিবহাল মহলের ব্যাখ্যা, করোনার করাল গ্রাসে ইতিমধ্যেই ধুঁকছে গোটা বিশ্ব। করোনার থাবায় কাহিল ভারতও।

দেশের অর্থব্যবস্থা পুরোপুরি ভেঙে পড়ার উপক্রম তৈরি হয়েছে। এই অবস্থায় নিজামুদ্দিনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে নতুন করে দেশে সাম্প্রদায়িক গন্ডগোল ছড়িয়ে পড়লে তা আরও মারাত্মক হবে। সরকার চালানোই দায় হয়ে উঠবে মোদী-শাহদের কাছে। এই পরিস্থিতির আঁচ করেই আগেভাগে দলের নেতা-কর্মীদের সতর্ক করে দিয়েছেন জেপি নাড্ডা।