দিঘা: মাঝ সমুদ্রে কী যেন ভেসে আসছে। লকডাউন শিথিল হওয়ার পর এক অদ্ভুত দৃশ্য দেখঅ গেল দিঘার সমুদ্রে। একটি গোলাকার জিনিস ভেসে আসতে দেখা যায়, সেইসঙ্গে ওই বস্তুতে আলো জ্বলতেও দেখা যায়। সেই দৃশ্য দেখে অবাক হন অনেকেই।

পরে অবশ্য রহস্যের উদঘাটন হয়েছে। দেখা গিয়েছে, জাহাজেরই কোনও অংশ ভেসে এসেছে।

দিঘা কোস্টাল থানার পুলিস বোট নিয়ে, জিনিসটি কী জানতে এগিয়ে যায়। উপকূল থেকে তখন বস্তুটি প্রায় ২৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে। আর ধীরে ধীরে সেটি পাড়ের দিকে এগিয়ে আসছে। শেষে কোস্টাল থানার পুলিস বোট নিয়ে গিয়ে দেখে, সেটি একটি বিশালাকার ‘বয়া।’ সেটিকে টানতে বা নড়াতে পারেনি পুলিশ। খবর দেওয়া হয়েছে হলদিয়া পোস্ট গার্ডকে।

দিঘার নুলিয়ারা প্রথম ওই বস্তুটি দেখতে পায়। তড়িঘড়ি খবর দেয় দিঘা পুলিশ ও দিঘা কোস্টাল থানার পুলিশকে। সমুদ্রে মৎস্যজীবীরা নেই। পর্যটক শূন্য দিঘা। তারমধ্যে এরকম একটা অদ্ভুত জিনিস দেখে অবাক হয়ে যান স্থানীয়রা।

পুলিশ বোট ওই বস্তুটির কাছে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। দূর থেকেই দেখা যায়, বস্তুটির থেকে মাঝে মধ্যে তীব্র আলোও নির্গত হচ্ছে। আর বস্তুটি আকারে গোলাকার। প্রাথমিকভাবে পুলিসেরও মনে হয় যে, বস্তুটি হয়তো বড় আকারের কোনও ‘বয়া’।

পরে দেখা যায়, বয়াটিতে অনেক যন্ত্রাংশ ও আলো লাগানো রয়েছে। একটি টাওয়ারের মতো অংশও রয়েছে। দিঘা কোস্টাল থানার পুলিসের অনুমান, ঘূর্ণিঝড় আমফানের সময় বয়াটি নোঙর ছিঁড়ে যায়। তারপর জোয়ারের টানে সেটি সৈকতের দিকে এগিয়ে আসে। কী কাজে ওই বয়াটি ব্যবহার করা হত, তা খতিয়ে দেখছে পুলিস। পাশাপাশি ওই বয়াটি দেশীয় কিনা, তাও দেখা হচ্ছে।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।