ফাইল ছবি

নর্থ ক্যারোলিনা: ইউএফও কি সত্যিই আছে ? নাকি তা শুধুই রহস্য রোমাঞ্চ লেখকদের কল্পনা ? শুধুই কি মানুষের চোখের ভুল, নাকি সত্যিই ভিনগ্রহ থেকে অভিযানে আসে এলিয়ানরা। এনিয়ে জল্পনা, বিতর্কের কোনও শেষ নেই। কিন্তু এরই মাঝে বিতর্ক উসকে দিল একটি ভিডিও।

ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, খোলা সমুদ্রে হঠাৎই আকাশের গায়ে জ্বলছে বেশ কয়েকটি আলোর গোলক। এক বা দু সেকেন্ড নয় বেশ কিছু সময় ধরেই দেখা যাচ্ছে সেই আগুনের গোলকগুলিকে। ২৮ সেপ্টেম্বর অগ্নিগোলকের এই ভিডিও ইউটিউবে শেয়ার করেছেন উইলিয়াম গেই নামে এক ব্যক্তি। তাঁর ৩০ সেকেন্ডের ভিডিও রীতিমত ভাইরাল হয়েছে নেট দুনিয়ায়।

ভিডিওটি অনলাইনে শেয়ার করার পর থেকে এখন পর্যন্ত দেখে নিয়েছেন প্রায় ৪.৮ লক্ষ দর্শক। ভিডিওটি করার সময় সেই রহস্যময় আলোগুলিকে দেখে উইলিয়াম প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়েছেন, “কেউ কি আমায় বলতে পারবে এটা কী ?”

ভিডিওতে কমেন্ট বক্সে তাঁর এই প্রশ্নের উত্তরও দিয়েছেন অনেকে। কেউ বলেছেন, “এগুলি চিনা আলোর গুচ্ছ হতে পারে কি ? ” অন্যকেউ আবার বলেছেন, ইউএফও সাগরের জলে ও সমুদ্রে লুকিয়ে থাকার জন্যই পরিচিত”। অনেকে আবার সরাসরি এটিকে ফেক বা ভুয়ো বলেও দাবি করেছেন। কেউ আবার প্রশ্ন ছুঁড়েছেন, “ভিডিওটি শুধুমাত্র ৩০ সেকেন্ড কেন ? এর বাকি অংশ কোথায় ? ” কমেন্ট সেকশনে এক ব্যক্তি এটিকে শুধুমাত্র পাখিদের ঝাঁক বলেছেন, তাঁর দাবি, পাখির ডানার ওপর আলোর খেলার ফলেই এমন অদ্ভূত দেখতে লাগছে।

এক ব্যক্তি জানিয়েছেন, “আমি পুরোপুরি নিশ্চিত যে একজন প্রাক্তন মেরিন হিসাবে আমি জানি এই লাইটগুলি কী। আমরা সামরিক অনুশীলনের জন্য সন্ধ্যায় নিয়মিতভাবে বিমানের পেছনের দিক থেকে আগুন জ্বালাতাম। এরা প্রত্যেকে এক মিলিয়ন মোমবাতি শক্তি তাই তারা বেশ উজ্জ্বল তাই খুব দূরে থেকে ধীরে ধীরে ভাসতে দেখা যায় …. মেরিনরা এখনও মানুষকে চমকে দিচ্ছে দেখে আমি আনন্দিত “।

তবে ভিডিওটি মাত্র ৩০ সেকেন্ডের হওয়ায় নেটিজেনদের তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছেন উইলিয়াম। অনেকেই তাঁকে কমেন্ট বক্সে পুরো ভিডিও কোথায় তা জানতে চেয়ে প্রশ্ন ছুঁড়েছেন। কেউ আবার সরাসরি লিখে দিয়েছেন, যে উইলিয়াম পুরো ভিডিও পোস্ট করতে পারবে না, কারণ এটি ফেক।