স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায় প্রয়াত। সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে এই ভুয়ো খবরের তীব্র প্রতিক্রিয়া জানালেন প্রণব মুখোপাধ্যায়ের ছেলে অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়। সেইসঙ্গে সংবাদমাধ্যমের ভূমিকা নিয়েও বিরক্ত প্রকাশ করেছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার অভিজিৎ মুখোপাধ্যায় ট্যুইটে লিখেছেন, “আমার বাবা শ্রী প্রণব মুখার্জি এখনও বেঁচে আছেন! নামী সাংবাদিকরা সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচারিত জল্পনা ও মিথ্যা সংবাদগুলি স্পষ্টভাবে প্রতিফলিত করে যে ভারতে মিডিয়া ফেক নিউজের কারখানায় পরিণত হয়েছে।”

এরপর তিনি আরও বলেন, “আমার বাবার সম্পর্কে যে গুজব ছড়ানো হয়েছে তা মিথ্যে। বিশেষত সংবাদমাধ্যমকে অনুরোধ করছি, আমাকে ফোন করবেন না। কারণ হাসপাতাল থেকে খবর পাওয়ার জন্য আমার ফোনটা খালি রাখা দরকার।”

এদিন সকালেই সেনা হাসপাতালের বুলেটিনে বলা হয়, আজ সকালে প্রণব মুখোপাধ্যায়ের অবস্থার পরিবর্তন হয়নি। বিভিন্ন প্যারামিটার স্থিতিশীল থাকলেও তিনি গভীরভাবে কোমায় আচ্ছন্ন রয়েছেন। তিনি এখনও ভেন্টিলেটর সাপোর্টে রয়েছেন।

প্রসঙ্গত, সংকটজনক অবস্থায় ১০ অগাস্ট আর্মি রিসার্চ অ্যান্ড রেফেরাল হাসপাতালে ভরতি করা হয় প্রণব মুখোপাধ্যায়কে। আঘাত লাগার কারণে মাথায় রক্ত জমাট বেঁধে যায়। এরপর তাঁর অস্ত্রোপচার করা হয়।

মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচারের পরেই প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি তথা ভারতরত্ন প্রণব মুখোপাধ্যায়কে ভেন্টিলেটার সাপোর্টে রাখা হয়েছে। শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি ঘটেছে কারণ তিনি করোনাভাইরাস সংক্রামিতও হয়েছেন।

বাবার শারীরিক সুস্থতা কামনা করে ইতিমধ্যেই শর্মিষ্ঠা মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন, “গতবছর অগাস্ট মাসটা প্রচন্ড আনন্দদায়ক এবং গর্বের ছিল কারণ বাবা ভারতরত্ন পেয়েছিলেন। ঠিক এক বছর পরে এই অগাস্ট মাসে তিনি সংকটজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি। তাঁর জন্য যা ভাল হয় ভগবান সেটাই করুন, আমাকে শক্তি দিন যাতে আমি আনন্দ এবং দুঃখ দুটোই গ্রহণ করতে পারি একইভাবে।”

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা