ঢাকা: নিরাপত্তাজনীত কারণে পাকিস্তানে খেলতে যেতে অস্বীকার করলেন বাংলাদেশের সব থেকে অভিজ্ঞ ও নির্ভরযোগ্য তারকা মুশফিকুর রহিম৷ তবে আপাতত শুধু মাত্র টি-২০ সিরিজের জন্য পাকিস্তানে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মুশফিকুর৷ পরবর্তী টেস্ট ও ওয়ান ডে সিরিজ নিয়ে এখনও কিছু জানননি তিনি৷

বহু টালবাহানার পর গত ১৪ জানুয়ারি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড পূর্ণাঙ্গ সফরে পাকিস্তানে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়৷ প্রাথমিকভাবে টি-২০ সিরিজ নিয়ে আপত্তি না জানালেও বাংলাদেশ বোর্ড চেয়েছিল দু’ম্যাচের টেস্ট সিরিজের একটি পাকিস্তানে ও একটি বাংলাদেশের মাটিতে খেলতে৷ পিসিবি বাংলাদেশের এই প্রস্তাবে রাজি হয়নি পরে আইসিসি চেয়ারমান শশাঙ্ক মনোহরের মধস্থতায় বাংলাদেশ বোর্ড রাজি হয় পাকিস্তানে টি-২০, টেস্ট ও ওয়ান ডে সিরিজ খেলতে৷

যদিও একবারে নয়, তিন দফায় তিনটি সিরিজ খেলতে পাকিস্তানে যাওয়ার কথা বাংলাদেশের৷ শুরুতে ২৪-২৭ জানুয়ারি তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজ অনুষ্ঠিত হবে দু’দেশের মধ্যে৷ পরে ৭-১১ ফেব্রুয়ারি একটি টেস্ট খেলেতে পাকিস্তানে যাবে বাংলাদেশ দল৷ শেষে ৩-৯ এপ্রিল একটি টেস্ট ও একটি ওয়ান ডে খেলেতে পাক ভূ-খণ্ডে পা দেবে টাইগাররা৷

বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা আপাতত পাকিস্তানে খেলতে যাওয়া নিয়ে বেঁকে না বসলেও সিনিয়র তারকা মুশফিক নিজের সিদ্ধান্তের কথা মৌখিকভাবে জানিয়ে দিয়েছেন নির্বাচক প্রধানকে৷ সংবাদ সংস্থা এএফপি’কে বাংলাদেশের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন জানান, ‘মুশফিকুর আমাকে ফোন করে জানিয়েছে যে ও পাকিস্তানে যেতে চায় না৷ আমরা লিখিতভাবে ওর সিদ্ধান্তের কথা জানাতে বলেছি৷ চিঠি পেলে ওকে আমরা সরকারিভাবে সিরিজের বাইরে রাখার সিদ্ধান্ত নেব৷’

যার অর্থ, মুশফিকুর লিখিতভাবে বোর্ডকে পাকিস্তানে না যাওয়ার কথা জানালেই তিনি টি-২০ সিরিজ থেকে বাইরে চলে যাবেন৷ এখন দেখার যে, পরের দু’টি পর্বে টেস্ট ও ওয়ান ডে সিরিজ নিয়ে মুশফিকুর কী সিদ্ধান্ত নেন৷