স্টাফ রিপোর্টার, বহরমপুর: তৃণমূল গোষ্ঠী দ্বন্দ্বের জেরে আক্রান্ত হলেন মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদের সদস্য। জেলা পরিষদের তৃণমূল সদস্য সৌমিত্র মন্ডলকে তৃণমূল গোষ্ঠী কোন্দলের জেরে মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ। আহত সৌমিত্র মন্ডল মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

সৌমিত্র মন্ডল জানান, শনিবার সন্ধ্যায় বহরমপুর থানার আধারমানিক এলাকার নিয়ালিশ পাড়ায় জনসংসোগ বাড়াতে তৃণমূলের সাধারন মানুষেরদের নিয়ে মিটিং করছিলেন তিনি৷ মিটিং সেরে বাইক করে বাড়ি ফিরছিলেন৷ সেই সময় তাঁর উপর তৃণমূলের আশ্রিত দুস্কৃতীরা মারধর করে।

তাঁর অভিযোগ, পঞ্চায়েত নির্বাচনের সময় থেকে বহরমপুর পশ্চিম ব্লক এলাকায় বর্তমানে জেলা পরিষদের পুর্ত কর্মাধ্যক্ষ রাজিব হোসেন তার নেতৃত্বে তোলা বাজি করছেন৷ এলাকার মানুষদের কাছে এই তোলা আদায় করছেন৷ তিনি তার প্রতিবাদ করেছিলেন। সেই সময় সৌমিত্র বাবুর কাছে লক্ষাধিক টাকা দাবি করেছিলেন রাজিব হোসেন অনুগামীরা৷ তিনি সেই টাকা দিতে অস্বীকার করেছিলেন৷ এমনকি এই বিষয়ে তিনি মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূল কংগ্রেস পর্যবেক্ষক শুভেন্দু অধিকারী ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কাছে লিখিত অভিযোগ জানিয়েছিলেন। মুখ্যমন্ত্রী নির্দেশে এই ঘটনার তদন্ত চলছিল৷ তাঁর এই ঘটনার প্রতিবাদ জেরেই রাজিব হোসেন এই হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ করেন সৌমিত্র বাবু৷

ঘটনার খবর পেয়ে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে দেখা করতে যান মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি সুব্রত সাহা। বর্তমানে আহত সৌমিত্র মন্ডলকে চিকিৎসা জন্য মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে৷ ঘটনার জেরে এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশ বাহিনী। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বহরমপুর থানার পুলিশ।