স্টাফ রিপোর্টার, বহরমপুর: সপ্তদশ লোকসভা ফল প্রকাশের পর রদবদল দেখা গেল মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্বের৷ কলকাতায় ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠক থেকে জেলা তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্বে রদবদলের কথা ঘোষণা করেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিভিন্ন জায়গায় পাশাপাশি মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতিও বদল হল।

মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি সুব্রত সাহার জায়গায় নতুন সভাপতি হলেন সাংসদ আবু তাহের খান৷ আর সুব্রত সাহাকে জেলা সভাপতি থেকে সরিয়ে তাকে দেওয়া হল জেলা প্রেসিডেন্ট পদ। এতদিন জেলা প্রেসিডেন্ট পদে ছিলেন বর্ষীয়ান তৃণমূল নেতা মহম্মদ সহরব। অন্যদিকে বহরমপুর লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী অপূর্ব সরকারকে দায়িত্ব দেওয়া হল এনবিএসটিসির সভাপতির পদ।

লোকসভা নির্বাচনে খারাপ ফলের জেরেই কি এই রদবদল। যা নিয়ে ইতিমধ্যেই জেলার রাজনীতিতে শুরু হয়েছে গুঞ্জন। অন্যান্য জেলার তুলনায় মুর্শিদাবাদ জেলায় সামগ্রিক ফল ভালো হয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসের। এবার মুর্শিদাবাদে তিনটি লোকসভা কেন্দ্রের মধ্যে দুটিতেই বিজয়ী হয়েছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। কিন্তু তারপরেও এই রদবদল নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

সাংসদ নির্বাচিত হওয়ার পরই দলের জেলা সভাপতির দায়িত্ব দেওয়া হল আবু তাহের খানকে। অন্যদিকে জেলা সভাপতি সুব্রত সাহার সময় দুটি সাংসদ পেয়েছে শাসক দল কিন্তু তারপরও কেন এই রদবদল বুঝে উঠতে পারছেন না জেলা তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব। দলের বর্ষীয়ান নেতা মহম্মদ সহরবকে প্রেসিডেন্ট পদ থেকে বাদ দিয়ে তার জায়গায় সুব্রত সাহাকে বসানোয় আগামী দিনে ভোট ব্যাংকে তার প্রভাব পড়তে পারেই বলে মনে করছে জেলা রাজনৈতিক মহল।