স্টাফ রিপোর্টার, মুর্শিদাবাদ: হাতের খাস তালুক বলেই পরিচিত নবাবের মুর্শিদাবাদ৷ কিন্তু আজ নবাব নেই, নেই কংগ্রেসের সেই শক্তিও৷ ফলে হারানো স্মৃতিকে সম্বল করেই মুর্শিদাবাদ কেন্দ্রে সোনার গৌরব ফেরানোর চ্যালেঞ্জ কংগ্রেস প্রার্থী আবু হেনার৷

প্রচার করছেন সকাল সন্ধ্যা নিয়ম করে৷ কখনও হুড খোলা জিপে, আবার কখনওবা বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচার৷ কিন্তু তাতেও কী দুশ্চিন্তা কাটছে? প্রশ্ন রয়েছে প্রচারে বের হওয়া কংগ্রেস কর্মী, সমর্থকদের মধ্যেই৷

এদিন যেমন মুর্শিদাবাদ লোকসভা কেন্দ্রের হরিহরপাড়া বিধানসভা এলাকায় প্রচার করেন কংগ্রেস প্রার্থী আবু হেনা৷ প্রচার করেন হরিহরপাড়া বিধানসভার খিদিরপুর,হুমায়পুর,বিহারিয়া,রুকুনপুর,হরিহরপাড়,শরুপপুর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকাতেও৷ ছিলেন ব্লক কংগ্রেস সভাপতি মীর আলমগীর সহ দলীয় কর্মী সমর্থকেরা৷

কংগ্রেস প্রার্থী প্রচারে তুলে আনছেন কেন্দ্রের মোদী ও রাজ্যের মমতা সরকারের বিভিন্ন নীতি, সিদ্ধান্তকে৷ বাংলায় রাজনৈতিক সন্ত্রাস প্রসঙ্গেও সরব আবু হেনা৷ আশা করছেন নিরাপত্তা সুনিশ্চিৎ করতে পারলে ইভিএমেই জবাব দেবে মানুষ৷

কিন্তু প্রশ্ন মুর্শিদাবাদ তো আগেই দখল নিয়েছে বামেরা৷ গতবার জিতেছিলেন সিপিএমের বদরুদ্দোজা৷ আর রায়গঞ্জের মতো এই কেন্দ্র নিয়েই তো বামেদের সঙ্গে হাতের বিরোধ৷ বিজেপির হুমায়ুন কবীরও কংগ্রেসের প্রাক্তনী৷ অন্যদিকে, এই কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থীও এককালের অধীর ঘনিষ্ট বলে পরিচিত৷ ফলে চ্যালেঞ্জ মুর্শিদাবাদে জয় পাওয়া, নাকি বামেদের পিছনে ফেলা? কংগ্রেসের আবু হেনার জবাব, ‘‘রাজনীতি নীতির লড়াই, জয়ই একমাত্র লক্ষ্য৷’’