বারাণসী: রবিবার ছিল শেষ এবং সপ্তদশ নির্বাচন। কয়েকটি বিক্ষিপ্ত ঘটনা ছাড়া মোটের উপর শান্তিপূর্ণ ভাবেই শেষ হয়েছে সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচন। গতকাল রবিবার মোট দেশের ৫৯টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ ছিল। কিন্তু এতগুলি কেন্দ্রের মধ্যে গোটা দেশবাসীর নজর ছিল প্রধানমন্ত্রী মোদী কেন্দ্র বারাণসীতে।

বাংলা এক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর মোতাবেক, বিকেল ৪টে পর্যন্ত এই কেন্দ্রে ভোটের হার ছিল ৪৬.৫৩ শতাংশ। বারাণসীর অন্তর্গত বিধানসভা কেন্দ্রগুলির ভোটের হার যথাক্রমে সেবাপুরী বিধানসভা (৪৯.৩০), রোহানিয়া (৪৮.৩৩), বারাণসী উত্তর (৪৪.৪৯), বারাণসী দক্ষিণ (৪৭.১১) এবং বারাণসী ক্যান্টনমেন্ট (৪৪.৪০)।

মুরলীমনোহর যোশি বলেন, বারাণসীবাসীর আশীর্বাদ পেয়েছেন মোদী। যোশিকে সাংবাদিকদের প্রশ্ন, ভাবশিষ্য মোদীকে কি আশীর্বাদ করেছেন? জবাবে বারাণসীর প্রাক্তন সাংসদ বলেন, ‘আমি কে? জনতা ওঁকে আশীর্বাদ করেছে।’

উলেখ্য এই বারাণসী কেন্দ্র থেকে দীর্ঘদিন ধরে লড়াই করেছেন মুরলীমনোহর যোশি। সাংসদও হয়েছেন। গত ২০০৯ সালের ভোটে বিজেপির টিকিটে বারাণসী থেকে সাংসদ হন। কিন্তু ২০১৪ সালে মুরলীমনোহরকে কানপুর কেন্দ্রে সরিয়ে দেয় দল। আর তাঁর জায়গায় মোদীকে বারাণসী কেন্দ্র থেকে প্রার্থী করে বিজেপি। যদিও এবার মুরলীমনোহরকে টিকিট দেয়নি বিজেপি। শুধু সাংসদ নন, অটলবিহারী বাজপেয়ির মন্ত্রিসভার সদস্য ছিলেন মুরলীমনোহর।