স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: ঘরে ঢুকে যৌনকর্মীকে খুন করার ঘটনায় শনিবার দুপুর থেকে উত্তেজনা ছড়াল তালপুকুর যৌনপল্লীতে। ঘটনাটি ঘটেছে, শনিবার বারাকপুর শহরের তালপুকুরের একটি পতিতা পল্লীতে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, খুন হওয়া ওই যৌনকর্মীর নাম মৌসুমী দাস। শনিবার দুপুরে টিটাগড় থানার অন্তর্গত বারাকপুরের তালপুকুরের পতিতা পল্লীতে ঘরে ঢুকে ওই যৌনকর্মীকে খুন করে পালায় দুই দুষ্কৃতী।

জানা গিয়েছে, ঘটনার খবর পেয়ে কিছুক্ষনের মধ্যে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় টিটাগড় থানার বিশাল পুলিশবাহিনী। তারাই ওই যৌনকর্মীকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য পাঠায় ডাঃ বিএন বসু মহাকুমা হাসপাতালে। সেখানেই চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, দেহব্যবসার সঙ্গে যুক্ত ওই মহিলার ঘরে শনিবার দুপুরে দুজন যুবককে ঢুকতে দেখেন ওই পতিতাপল্লীর অন্যান্য যৌনকর্মীরা। কিছুক্ষন পরে তারাই আচমকা ওই যৌনকর্মীর ঘর থেকে গুলি চলার শব্দ শুনতে পান। কিন্তু কিছু বুঝে ওঠার আগেই সামনের দরজা খুলে পালিয়ে যায় ওই দুই যুবক। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে দ্রুত ছুটে আসে টিটাগড় থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। তারপরে পুলিশের সাহায্যেই ওই যৌনকর্মীকে পাঠানো হয় হাসপাতালে।

স্থানীয় প্রতিবেশী রুপাদেবী বলেন, খুন হওয়া ওই মহিলার ঘরে মাঝে মধ্যেই আসত ওই দুই যুবক। তাঁদের মধ্যে একজনের নাম গৌতম বলে জানা গিয়েছে। খুন করার পর গৌতম এবং আরেক যুবক পতিতাপল্লীর পাস দিয়ে যে রেললাইন চলে গিয়েছে সেই রেল লাইন ধরেই তারা পালিয়ে গিয়েছে বলে পুলিশ জানতে পেরেছে। কি কারনে মৌসুমির ঘনিষ্ঠ ওই দুই যুবক এমন কাণ্ড ঘটাল সেই ব্যাপারে সঠিক ভাবে কিছু জানাতে পারেননি রুপা দেবী। তবে এই খুনের ঘটনায় এখনও পর্যন্ত পুলিশ একজনকে গ্রেফতার করেছেন। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, খুনের ঘটনায় আটক হওয়া ওই যুবককে তাঁদের হেপাজতে রেখে আরও কিছু তথ্য জানার জন্য জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। শুধু তাই নয় এই জিজ্ঞাসাবাদের সূত্র ধরেই অপর দুষ্কৃতীর বিরুদ্ধে খোঁজ চালাচ্ছেন তারা।