মুম্বই: সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুকে ঘিরে চলছে নানা রকম জল্পনা। পুলিশ যদিও জানিয়েছে অভিনেতা আত্মঘাতী হয়েছেন। কিন্তু সুশান্তের অনুরাগী এবং ঘনিষ্ঠ কয়েকজন সেই দাবি মানতে নারাজ। পুলিশ ঘটনার তদন্ত করছে। এখনো পর্যন্ত ৩৪ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে মুম্বই পুলিশ। এবার ঘটনায় পরিচালক শেখর কাপুরকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পুলিশ।

পরিচালক দেশের বাইরে থাকায় মুম্বই পুলিশের প্রশ্নের বয়ান দিয়েছেন ইমেল মারফত। যশরাজ ফিল্মসের পানি ছবিটি তে শেখর কাপুরের পরিচালনায় সুশান্তের অভিনয় করার কথা ছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেই ছবি বন্ধ হয়ে যায়। সুশান্তের মৃত্যুর পরেই একটি সোশ্যাল মিডিয়া পোষ্টের মাধ্যমে শেখর জানিয়েছিলেন, ওই ছবিটি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বেশ ভেঙে পড়েছিলেন সুশান্ত। কান্নাকাটি পর্যন্ত করেছিলেন।

শেখর জানিয়েছেন পানি ছবিটি নিয়ে প্রচন্ড নিষ্ঠাবান ছিলেন সুশান্ত সিং রাজপুত। এই ছবিতে রিহার্সালের জন্য প্রাণপাত করে কঠোর পরিশ্রম করছিলেন তিনি। শুধু নিজের চরিত্রটুকুই নয় পুরো ছবিটিকে ভালোভাবে বুঝতে চেয়েছিলেন সুশান্ত। তাই রাত দুটো বা তিনটের সময়ও পরিচালক শেখর কাপুরকে ফোন করে ছবি নিয়ে কথা বলতেন তিনি। ছবিটির খুঁটিনাটি নিয়ে ব্যতিব্যস্ত থাকতেন অভিনেতা। এককথায় পানি ছবিটি নিয়ে নেশাগ্রস্ত হয়ে পড়েছিলেন সুশান্ত।

আর এরমধ্যেই যশরাজ ফিল্মস ছবিটি নিয়ে না এগোনোর সিদ্ধান্ত নেয়। তারা জানিয়ে দেয়, সুশান্ত সিং রাজপুতের সঙ্গে তারা আর কোন কাজ করতে চায় না। এই খবরে সেদিন ভেঙে পড়েছিলেন পরিচালক শেখর কাপুর এবং অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত। শেখর জানিয়েছেন, পানি ছবি আর হচ্ছে না এই খবর পেয়ে কেঁদে ফেলেছিলেন সুশান্ত। এই ঘটনায় খুব আঘাত পেয়েছিলেন অভিনেতা এবং রেগেও গিয়েছিলেন। আর তাই বেশ কিছু দিনের জন্য ভারত ছেড়ে অন্য কোথাও গিয়ে থেকে সুশান্ত। ইনস্টাগ্রাম লাইভে এই অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছেন শেখর কাপুর।

সম্প্রতি পরিচালক সঞ্জয় লীলা বনশালিকেও জিজ্ঞাসাবাদ করেছে মুম্বই পুলিশ। প্রাথমিকভাবে জানা গিয়েছিল, সুশান্ত সিং রাজপুতের আরও কমিটমেন্ট থাকায় বনশালির চারটি ছবি থেকে তাঁকে বাদ দেওয়া হয়েছিল।

প্রশ্ন অনেক: তৃতীয় পর্ব