মুম্বই: হিসাবটা সহজ ছিল৷ জিতলে প্লে-অফের টিকিট নিশ্চিত৷ হারলে রান রেটের নিরিখে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে যাওয়ার সম্ভাবনা প্রবল৷ এই অবস্থায় মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধে লিগের শেষ ম্যাচে জয় তুলে নিতে মরিয়া ছিল কলকাতা নাইট রাইডার্স৷ তবে মরণ-বাঁচন ম্যাচে রোহিতদের বিরুদ্ধে জ্বলে উঠতে ব্যর্থ নাইট রাইডার্স ব্যাটসম্যানরা৷

ওপেনার ক্রিস লিন আগ্রাসী ব্যাটিং করলেও তাঁর ওপেনিং পার্টনার শুভমন গিল ওয়াংখেড়েতে নজর কাড়তে ব্যর্থ৷ তবু শুরুটা মন্দ হয়নি কলকাতার৷ তবে শক্ত ভিতে বড় রানের ইমারত করতে হলে যে দায়বদ্ধতা দেখানো উচিত ছিল টপ-মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের, তা চোখে পড়েনি কেকেআরের খেলায়৷ বিশেষ করে আন্দ্রে রাসেল ব্যর্থ হওয়ায় কলকাতার ব্যাটিংকে কার্যত অচল পয়সার মতো দেখিয়েছে এই ম্যাচে৷ তবু লিন, উথাপ্পা ও নীতিশ রানার মিলিত প্রচেষ্টায় কেকেআর নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৩৩ রান তুলতে সক্ষম হয়৷ সুতরাং জয়ের জন্য ঘরের মাঠে মুম্বইকে তুলতে হবে ১৩৪৷

আরও পড়ুন: তৈমুর ভেবে ভুলের ফাঁদে নেটিজেন, জয়প্রিয়তায় জিভা-সামাইরাকে টক্কর মিষ্টি খুদের

পাওয়ার প্লে’তে বিনা উইকেটে ৪৯ রান মুম্বইয়ের পিচে খারাপ নয়৷ আগ্রাসী ব্যাটিং করছিলেন লিন৷ তাঁকে যথাযথ সঙ্গত করছিলেন গিল৷ তবে পাওয়ার প্লে’র ঠিক পরেই গিল আউট হন ১৬ বলে ৯ রানের ধীর ইনিংস খেলে৷ তাঁকে এলবিডব্লু’র ফাঁদে জড়ান হার্দিক পান্ডিয়া৷ পরের ওভারে বল করতে এসে পান্ডিয়াই আউট করেন ক্রিস লিনকে৷ ফিরে যাওয়ার আগে ২টি চার ও ৪টি ছক্কার সাহায্যে ২৯ বলে ৪১ রান করেন অজি তারকা৷

কার্তিক ও রাসেলকে পর পর দু’বলে ফিরিয়ে দেন মালিঙ্গা৷ কার্তিক ৩ রান করে সাজঘরে ফেরেন৷ রাসেল খাতা খোলার আগেই ডাগ আউটের দিকে হাঁটা লাগান৷ নীতিশ রানা ১৩ বেল ২৬ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলে মালিঙ্গাকেই উইকেট দেন৷ ইনিংসের শেষ দু’টি বলে বুমরাহ আউট করেন হন রবিন উথাপ্পা ও রিঙ্কু সিংকে৷ উথাপ্পা ১টি চার ও ৩টি ছক্কার সাহায্যে ৪৭ বলে ৪০ রান করে ক্রিজ ছাড়েন৷ রিঙ্কু সিং ৬ বলে ৪ রান করে ফিরে যান৷

আরও পড়ুন: টি-টোয়েন্টি লিগে সচিন পুত্রের দর উঠল ৫ লক্ষ

মুম্বইয়ের হয়ে ৩৫ রানের বিনিময়ে ৩টি উইকেট নেন মালিঙ্গা৷ পান্ডিয়া নিয়েছেন ২০ রানে ২টি উইকেট৷ বুমরাহ দখল করেছেন ৩১ রানে ২টি উইকেট৷ কোনও উইকেট না পেলেও কৃপণ বোলিং করেছেন ক্রুণাল পান্ডিয়া ও মিচেল ম্যাকক্লেনাঘান৷ ক্রুণাল ৪ ওভারে মাত্র ১২ এবং ম্যাকক্লেনাঘান ৪ ওভারে একটি মেডেনসহ মাত্র ১৯ রান খরচ করেন৷