মুম্বই: ভারতীয় ক্রিকেটকে সবসময় এগিয়ে নিয়ে গেছে মুম্বই, এরকমই প্রশংসা সোনা গেল মুম্বইকর সচিন তেন্ডুলকরের গলায়৷

মুম্বই ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশান আইপিএলের আদলে ২০ ওভারের একটি ইন্টার-সিটি ক্রিকেট লিগ শুরু করতে চলেছে৷ ওয়াঙ্খেড়ে স্টেডিয়ামে ১১ ই মার্চ থেকে ২১ মার্চ পর্যন্ত ছ’টি টিমের মধ্যে এই টুর্নামেন্ট খেলা হবে৷ এই খেলার প্রধান উদ্দেশ্য হল সেই সমস্ত প্লেয়ার, যারা বড় মঞ্চে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করতে পারেননি তাদের লাইমলাইটে নিয়ে আসা৷

আরো পড়ুন: বিরাটের থেকে প্রতিদিন শিখি: স্মিথ

ভারতের কিংবদন্তী ক্রিকেটার সচিন তেন্ডুলকর মুম্বই ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের নতুন ইন্টার-সিটি টি-টোয়েন্টি লিগের ব্র্যান্ড অ্যাম্বেসেডর হয়েছেন৷ একটি অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি এই মুর্হূতে মুম্বইয়ের জন্য ‘মুম্বই ক্রিকেট লিগের’ মত একটি টুর্নামেন্টের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে৷ মুম্বই ক্রিকেট থেকে মহান ক্রিকেটেররা উঠে এসেছেন৷ এই লিগের অংশ হতে পেরে আমি খুশি৷’

আরো পড়ুন: বিশ্বজয়ী অধিনায়কের সঙ্গে ক্রিকেটে মজলেন প্রধানমন্ত্রী

মুম্বইয়ের রঞ্জিট্রফির গরিমাময় ইতিহাসের উল্লেখ্য করে তেন্ডুলকর বলেন, ‘মুম্বইয়ের ৪১ বছরের রঞ্জিট্রফি জয়ের অসামান্য ইতিহাস রয়েছে৷ আমার মনে আছে খুব ছোটবেলায় শিবাজী পার্কে, কামাথ মেমোরিয়াল ক্লাবে প্যাডি স্যার আমাকে বল করেছিলেন ৷ তখন ওনার বয়স আমার বয়সের তিনগুন কিন্তু উনি আমাকে ছোট ভেবে অবহেলা করেননি৷ এইগুলো মুম্বইতেই সম্ভব৷ নতুনদের জন্য এটা খুবই ভালো যে ওরা মুম্বই ক্রিকেটের বড় নামগুলির সঙ্গে খেলার সুযোগ পাবে৷ অনেক কিছু শিখতে পারবে৷ আমি এই টুর্নামেন্ট নিয়ে আশাবাদী৷’

তেন্ডুলকর ছাড়াও অজিত ওয়াদেকর, সুনীল গাভাস্কর, চন্দ্রকান্ত পন্ডিত, দিলীপ বেঙসরকার, সঞ্জয় মঞ্জরেকর, প্রভীন আমরে, ভিনোদ কাম্বলির মত প্লেয়াররা মুম্বই ক্রিকেট থেকে উঠে এসে জাতীয় দলের জার্সি গায়ে ক্রিকেট বিশ্বে দাপিয়ে বেড়িয়েছেন৷ ইদানিংকালের বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা, শ্রেয়স আইয়ার এবং শার্দুল ঠাকুরের মত প্রতীভাবান ক্রিকেটাররা মুম্বই থেকে তাঁদের ক্রিকেট কেরিয়ার শুরু করেছিলেন৷

আরো পড়ুন:পুলিশের চেয়ারে তারকা ক্রিকেটার

শুরু হতে চলা মুম্বইয়ের এই নতুন ক্রিকেট লিগটিতে দল প্রতি ৩ কোটি অবধি খরচা করতে পারেন টিমের মালিকরা৷ যেখানে ৩৫ কোটি প্লেয়ার-ক্যাপ রাখা হয়েছে৷ বিষয়টির উল্লেখ্য করে মাস্টার ব্লাস্টার জানান, ‘রঞ্জি ট্রফিতে সুযোগ না পাওয়া প্লেয়াররাও এখান থেকে অর্থ রোজগার করে ফ্যামিলিকে সাপোর্ট করতে ও খেলা চালিয়ে নিয়ে যেতে পারবে৷’

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।