পানাজি: প্রথম পর্বের শেষ ম্যাচে সোমবার ফতোরদায় আইএসএল ক্লাসিকোতে মুম্বই সিটি এফসি’র মুখোমুখি হয়েছিল এটিকে-মোহনবাগান। আইল্যান্ডারদের হারিয়ে শীর্ষে যাওয়ার সুযোগ থাকলেও উলটে মুম্বইয়ের কাছে হেরে চলতি টুর্নামেন্টে দ্বিতীয় হারের মুখ দেখল এটিকে-মোহনবাগান। সেইসঙ্গে লিগ শীর্ষে পাঁচ পয়েন্টে এগিয়ে থেকে অবস্থান আরও মজবুত করল বাণিজ্য নগরীর দলটি। এদিন উপভোগ্য ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে বার্থোলোমিউ ওগবেচের করা একমাত্র গোলেই তিন পয়েন্ট নিশ্চিত করে মুম্বই সিটি এফসি। কিন্তু মুম্বইয়ের সেই গোলকে ‘অনায্য’ বলে দাবি করছেন সবুজ-মেরুনের স্প্যানিশ কোচ।

একইসঙ্গে হাবাসের কথায়, এদিনের ম্যাচে কোনওভাবেই প্রতিপক্ষের তুলনায় পিছিয়ে ছিল না তাঁর দল। এমনকি আইল্যান্ডারদের তারা বেশি গোলের সুযোগও করতে দেননি বলে ম্যাচ শেষে দাবি করেন দু’বারের আইএসএল জয়ী কোচ। হাবাস বলেন, ‘আমি তো মুম্বই সিটি এবং এটিকে-মোহনবাগানের মধ্যে খুব বেশি পার্থক্য দেখলাম না। ওরাও দু’টো সুযোগ পেয়েছিল আমরাও দু’টো সুযোগ পেয়েছি। তবে আমি আমার দলের প্রথম ৪৫ মিনিটের খেলায় খুশি নই। প্রথমার্ধে দল একেবারেই ছন্দ খুঁজে পায়নি। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে আমরা উন্নতি করেছি। এমনকি যে কোনও সময় সমতায়ও ফিরতে পারতাম।’

হাবাস বলেন তাঁর দলের পরিকল্পনা ছিল এদিন শুরু থেকেই প্রেসিং ফুটবল খেলার। কিন্তু তাঁর ছেলেরা সেটা করে উঠতে পারেনি বলেই মনে করেন স্প্যানিশ কোচ। তবে মুম্বই প্রথমার্ধে একের বেশি সুযোগ পেয়েছে বলে মনে করেন না হাবাস। তবে আপাতত আগামী গোয়া ম্যাচকেই ফিরে আসার জন্য পাখির চোখ করছেন তিনি। সোমবার ম্যাচ শেষে হাবাস বলেন, ‘উন্নতি ছাড়া গতি নেই। আজ আমরা টুর্নামেন্টে প্রথম ওপেন-প্লে থেকে গোল খেলাম। দলের ফুটবলারদের এই হার থেকে শীঘ্র বের করে এনে পরের এফসি গোয়া ম্যাচের পরিকল্পনা প্রস্তুত করতে হবে।’

তবে এদিন গোলটির ক্ষেত্রে মুম্বই ফেয়ার-প্লে করেনি, দাবি হাবাসের। উল্লেখ্য, মুম্বইয়ের গোলের সময় এদু গার্সিয়া মাঠে পড়ে ছিলেন এদিন। সেই প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে এটিকে-মোহনবাগান কোচ জানান, ‘মুম্বইয়ের গোলের মুভটা যখন তৈরি হয়েছিল আমাদের একজন ফুটবলার মাঠে পড়েছিলেন। সে সময় বিপক্ষের উচিৎ ছিল বলটা মাঠের বাইরে করে দেওয়া। কিন্তু তা না করে ওরা খেলাটা চালিয়ে গেল এবং গোল করল। এটা কখনোই ফেয়ার-প্লে হতে পারে না। বিষয়টা আমাদের জন্য খারাপ হয়েছে।’

দ্বিতীয় পর্বের প্রথম ম্যাচে আগামী ১৭ জানুয়ারি এফসি গোয়ার মুখোমুখি হবে এটিকে-মোহনবাগান। অন্যদিকে মুম্বই সিটি এফসি খেলবে হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে ঠিক তার আগের সন্ধ্যায়।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।