ওয়েলিংটন: শুক্রবার বেসিন রিজার্ভে ভারতের বিরুদ্ধে খেলতে দেখা যাবে মুম্বইয়ের বাঁ-হাতি স্পিনার আজাজ প্যাটেলকে৷ ভারতের বিরুদ্ধে টেস্ট খেলার স্বপ্নপূরণ হতে চলেছে এই গুজরাতি ক্রিকেটারের৷ ভারতের বিরুদ্ধে সিরিজের প্রথম টেস্টে নিউজিল্যান্ডের ১৩ জনের দলে জায়গা পেয়েছেন ভারতীয় বংশোদ্ভুত ৩১ বছরের এই ক্রিকেটার৷

ভারতীয় কানেকশন অনেক আগে শেষ হয়ে গিয়েছে৷ তবে তাঁর জন্মভূমির বিরুদ্ধেই এবার বাইশ গজে লড়াইয়ে নামছেন আজাজ৷ মুম্বইয়ের অনতিদূরে ভারুচ জেলার তানকারিয়া গ্রামে এক গুজরাতি পরিবারে জন্ম আজাজ প্যাটেলের৷ তবে জন্মের কয়েক বছর পরেই পরিবারের সঙ্গে আজাজ পাড়ি দেন নিউজিল্যান্ডে। ১৯৯৬ সাল থেকে নিউজিল্যান্ডের বাসিন্দা তিনি। ক্রিকেটার হওয়ার স্বপ্ন না-থাকলেও স্কুলে মাঝেমাঝে হাতে পাকাতেন৷ কিন্তু এর ২২ বছর পর নিউজিল্যান্ডের জার্সিতে টেস্ট অভিষেক হয় আজাজের৷ ব্ল্যাক ক্যাপসদের জার্সিতে এখনও পর্যন্ত ৭টি টেস্টও খেলে ফেলেছেন তিনি৷

নিউজিল্যান্ডের হয়ে টেস্ট অভিষেক হয় ২০১৮ আবু ধাবিতে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে৷ প্রথম টেস্টে বল হাতে দলকে রুদ্ধশ্বাস জয় এনে দিয়েছিলেন আজাজ৷ দ্বিতীয় ইনিংসে ৫৯ রানে পাঁচ উইকেট তুলে নিয়ে নিউজিল্যান্ডকে চার রানে টেস্ট জেতাতে বড় ভূমিকা নিয়েছিলেন ভারতীয় বংশোদ্ভুত এই ক্রিকেটার৷

৩১ বছরের কিউয়ি স্পিনার বুধবার এক প্রমোশনাল ইভেন্টে বিশুদ্ধ হিন্দি ভাষায় বলেন, ‘ভারতের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজ আমার কেরিয়ারের পক্ষে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কখনও ভাবিনি ভারতের বিরুদ্ধে টেস্ট খেলার সুযোগ পাব।’ ঘরোয়া ক্রিকেটেও নিজেকে প্রমাণ করেছেন আগে। ৬৫টি প্রথমশ্রেণির ম্যাচে আজাজের ঝুলিতে রয়েছে ২৩৫টি উইকেট। কিংবদন্তি কিউয়ি বাঁ-হাতি স্পিনার ড্যানিয়েল ভেত্তোরি তাঁর হিরো বলেও জানান আজাজ৷

পাঁচ ফুট ছ’ ইঞ্চির আজাজ ফাস্ট বোলার হিসেবে শুরু করেছিলেন৷ কিন্তু কুড়ি বছর বয়সে প্রাক্তন কিউয়ি স্পিনার দীপক প্যাটেলের তত্ত্বাবধানে স্পিন বোলিং শুরু করেন আজাজ৷ দীপক প্যাটেল ছিলেন ভারতীয় বংশোদ্ভুত প্রথম কিউয়ি ক্রিকেটার৷ দীপকের কোচিংয়ে অনূর্ধ্ব-১৯ নিউজিল্যান্ড দলে খেলেছেন আজাজ৷ তাঁর সম্পর্কে দীপক জানান, ‘প্রায় বছর দশেক আগের ঘটনা৷ ও পেস বোলিং করত৷ কিন্তু উচ্চতার কথা মাথায় রেখে আমি ওকে স্পিন বল করার পরামর্শ দিই৷ কারণ ওর মধ্যে স্পিনার হওয়ার রসদ মজুত ছিল৷’

ভেত্তোরি ‘হিরো’ হলেও বর্তমানে ভারতীয় বংশোদ্ভুত এই বাঁ-হাতি স্পিনার রবীন্দ্র জাদেজার বড় ভক্ত আজাজ। আজাজ বলেন, ‘বর্তমান প্রজন্মের ক্রিকেটারদের মধ্যে আমার ফেভারিট রবীন্দ্র জাদেজা। ওকে দেখে সবসময় শেখার চেষ্টা করি।’ আজাজের পরিবার থাকে অকল্যান্ডে। তবে শুক্রবার থেকে শুরু ওয়েলিংটনে ভারতের বিরুদ্ধে আজাজের খেলা দেখে উপস্থিত থাকতে পারেন তাঁর পরিবার৷