তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: ‘বাঁকুড়া কেয়ার্স-রান ফর সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ’ স্লোগানকে সামনে জেলা পুলিশের উদ্যোগে ম্যারাথন দৌড় প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হলো মুকুটমনিপুরে। রবিবার সাধারণ প্রতিযোগীদের উৎসাহ দিতে এই প্রতিযোগীতায় অংশ নেন জেলাশাসক ডাঃ উমাশঙ্কর এস, পুলিশ সুপার কোটেশ্বর রাও, জেলা পরিষদের সভাধিপতি মৃত্যুঞ্জয় মুর্ম্মু, খাতড়ার মহকুমাশাসক রাজু মিশ্র, মহকুমা পুলিশ আধিকারিক বিবেক ভার্মা, রানীবাঁধের বিধায়ক জ্যোৎস্না মাণ্ডি প্রমুখ।

উদ্যোক্তাদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এদিন পুরুষ বিভাগে ১০ কিলোমিটারে ২ হাজার ও মহিলাদের ৫ কিলোমিটার দৌড় প্রতিযোগীতায় ৫০০ জন অংশগ্রহণ করেন। অংশগ্রহণকারী সফল প্রতিযোগীদের শংসাপত্র, স্মারক ও বিজয়ী প্রতিযোগীদের এদিন বিশেষভাবে সম্মানিত করা হয়।

পরে জেলা পুলিশ সুপার কোটেশ্বর রাও বলেন, মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে সারা রাজ্য জুড়েই সেফ ড্রাইভ, সেভ লাইফ প্রকল্প চলছে। এদিন ম্যারাথন দৌড় প্রতিযোগীতায় সাধারণ মানুষের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা দেখা গেছে জানিয়ে তিনি বলেন, প্রতিশ্রুতিমান খেলোয়াড়-দৌড়বিদদের পাশে পুলিশ ও প্রশাসন সব সময় রয়েছে। একই সঙ্গে জঙ্গল মহলের সার্বিক সুরক্ষা ও পর্যটক-সাধারণ মানুষ যাতে কোন রকম সমস্যার মধ্যে না পড়েন সেই বিষয়টি তারা নিশ্চিত করতে চাইছেন।

জেলাশাসক ডাঃ উমাশঙ্কর এস রাজ্য সরকারের উদ্দেশ্য বাখ্যা করে বলেন, শিক্ষাক্ষেত্রের পাশাপাশি খেলাধুলার মানোন্নয়নের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আগামী সপ্তাহে কলকাতায় অনুষ্ঠিতব্য জাতীয় স্তরের টাটা ম্যারাথন দৌড় প্রতিযোগীতায় বাঁকুড়া জেলা থেকে ২৫ জন প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করছে। এদের সমস্ত খরচ জেলা প্রশাসন বহন করছে। একই সঙ্গে রাজ্যের তরফে তৈরী হওয়া খাতড়া স্পোর্টস্ আকাদেমী খুব শীঘ্রই চালু হয়ে যাবে বলে তিনি জানান।

অন্যদিকে, বাঁকুড়া খ্রীশ্চান কলেজ প্রাঙ্গনে প্রাতঃভ্রমণকারীদের উদ্যোগে ‘ভূগর্ভস্থ জল অপচয় ও সংরক্ষণ’ বিষয়ে সাধারণ মানুষকে সচেতন করতে ম্যারাথন দৌড় প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হলো। শহরের জেলা পরিষদ অডিটোরিয়াম প্রাঙ্গন শুশুনিয়া পাহাড় পর্যন্ত এই দৌড় প্রতিযোগীতায় ৪০ জন মহিলা সহ ৪০০ জন প্রতিযোগী অংশ নেন বলে জানা গেছে।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

Tree-bute: রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও