ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: পুলিশকর্তা রাজীব কুমারকে খুঁজে পাচ্ছে না সিবিআই। তবে সিবিআই কি ব্যর্থ? বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের জবাব, এর জবাব মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দিতে পারবেন। কারণ তিনি বলেছিলেন রাজীব কুমার পৃথিবীর সব থেকে ভালো অফিসার।

মুকুল আরও বলেন, (আদালতের) অর্ডার অনুযায়ী রাজীব কুমার রাজ্যের বাইরে যেতে পারবেন না। (উনি কোথায় আছেন তা) রাজ্যের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী হিসাবে জানেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানেন, ডিজিপি জানেন, কলকাতা পুলিশ এলাকায় হলে সিপি জানেন এবং এডিজি আইনশৃঙ্খলা জানেন। রবিবার থেকেই কলকাতা এবং বিধাননগরের প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারের খোঁজে হন্যে হয়ে ঘুরছে সিবিআই অফিসাররা৷ এই বিষয়ে তথ্য পেতে রবিবার এবং সোমবার পরপর নবান্নে যান সিবিআইয়ের দুই অফিসার৷

রবিবার একমাত্র ডিজি কন্ট্রোল চিঠি জমা নিয়েছে। সোমবার মুখ্যসচিব এবং স্বরাষ্ট্রসচিবের দফতর চিঠি জমা নেয়। সেই চিঠির জবাবও দিয়েছেন ডিজি বীরেন্দ্র৷ জানা গিয়েছে, ডিজির উত্তরের প্রতিলিপি পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে সিবিআই দফতরে৷ প্রথমে বিধাননগর কমিশনারেটে পাঠানো হয় এই উত্তরের কপি৷ সেখান থেকে পুলিশ আধিকারিকদের একটি দল সল্টলেকের সিজিও কমপ্লেক্সে যান সিবিআইয়ের হাতে সেই চিঠি তুলে দিতে৷

সোমবার রাজ্য বিজেপির সদর দফতর, ৬ নম্বর মুরলিধর সেন লেনে মুকুল রায় রাজীব কুমার প্রসঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উওয়ার দায় চাপিয়ে দিয়েছেন। রাজীব কুমার প্রসঙ্গে বিজেপি কড়া অবস্থান নিচ্ছে। রাজীব কুমার-ই সারদা মামলায় তথ্য প্রমাণ লোপাট করেছে বলে যে অভিযোগ উঠেছে, তার তদন্ত হওয়া প্রয়োজন বলে মনে করে বিজেপি।কলকাতা এবং বিধাননগরের প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারের উপর থেকে রক্ষাকবজ উঠে গিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট এর নির্দেশে।

তদন্তের স্বার্থে সিবিআই রাজীব কুমারকে যেকোন সময় গ্রেফতার করতে পারে। তার পর থেকেই রাজীব কুমার কোথায় তা জানা যাচ্ছে না। রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ শনিবার বলেছেন, পি চিদাম্বরমও পালিয়ে বাঁচতে পারেনি রাজীব কুমারও পারবেন না।