রায়গঞ্জ: উত্তর দিনাজপুরের সাংগঠনিক সভায় যাওয়ার আগে মালদায় বিস্ফোরক মুকুল রায়। তৃণমূল সুপ্রিমোকে তীব্র ভাষায় কটাক্ষ করলেন বিজেপির এই নেতা। তিনি বলেন, মালদা সহ সারা পশ্চিমবাংলায় কোন আইনের শাসন নেই। বাংলায় এখন একটাই প্রশ্ন লোকতন্ত্র থাকবে কি থাকবে না।

পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রসঙ্গ এনে তিনি বলেন, “বাংলায় মৃত্যুর সংখ্যা ৮৯ এবং লোকসভা নির্বাচনের পর থেকে মৃত্যুর সংখ্যা ৩৫। এখন সারা ভারতবর্ষের মানুষের কাছে একটাই প্রশ্ন বাংলায় গণতন্ত্র থাকবে কি থাকবে না।” এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে লড়াইয়ের জন্য গান্ধী সংকল্প যাত্রার ডাক দেওয়া হয়েছে।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরি ক্ষোভ উগরে দিয়ে মুকুল রায় বলেন, “মুখ্যমন্ত্রী পাহাড়ে থাকুন আর সমতলে থাকুন বাংলা জনাদেশ পরিষ্কার ২০২১ মমতার সরকার উৎখাত হবে। পুরসভা ভোট হবে কিনা তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। তিনি বলেন মমতা ব্যানার্জি অগণতান্ত্রিক। তিনি গণতন্ত্র মানেন না। তাই ভোট হওয়ার সম্ভাবনা নেই। তবে ভোট হলে ১২৮ টি পুরসভা ও দশটি কর্পোরেশনের মধ্যে অধিকাংশটাই বিজেপি জিতবে।”

রাজ্যপালের জেলা সফর নিয়েও এদিন মুখ খুলেছেন তিনি। তাঁর বক্তব্য, “রাজ্যপাল সাংবিধানিক প্রধান। তিনি জেলায় যাবেন আধিকারিকদের সাথে বৈঠক করবেন এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু যেভাবে তার বৈঠকে যাচ্ছেন না প্রশাসনিক আধিকারিকরা এটাই সংবিধানের পক্ষে বড় বিপদ।”

কেন্দ্রীয় সরকারের প্রশংসা করতে গিয়ে বিজেপি নেতার আরও বক্তব্য, এই ভারত নতুন ভারত। যারদিকে কেউ চোখ তুলে তাকালে সে যোগ্য জবাব পাবে। এটা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নয়, নরেন্দ্র মোদি সরকার।” পাক অধিকৃত কাশ্মীরে ভারতীয় সেনাবাহিনীর সার্জিক্যাল স্ট্রাইক প্রসঙ্গে একথা বললেন মুকুল রায়।