ফাইল ছবি

ইংরেজবাজার: তাঁদের মধ্যে সম্পর্ক আগাগোরা আদায়-কাঁচকলায়। একসময় দু’জনেই ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী। শোনা যায়, পারস্পরিক বিবাদের কারণেই খোয়া গিয়েছে মন্ত্রক। ওই কারণেই এখন দলের মধ্যেও রয়েছেন ব্রাত্য হয়েই।

আরও পড়ুন- মমতার চাপ বাড়িয়ে মুকুলের হাত ধরে বিজেপিতে যোগ তৃণমূলের প্রতিষ্ঠাতার

রাজ্যের শাসক তৃণমূল কংগ্রেসের এই দুই নেতাকে বিজেপির যোগ দেওয়ার আহ্বান জানালেন মুকুল রায়। তৃণমূল কংগ্রেসের ওই দুই নেতা হলেন কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী এবং সাবিত্রী মিত্র। এই দু’জনেই এখন তৃণমূলে ব্রাত্য হয়ে গিয়েছেন।

আরও পড়ুন- ব্রিগেড সমাবেশের প্রস্তুতি, দেওয়াল লিখনে সাজছে বাঁকুড়া

আরও পড়ুন- মমতার চাপ বাড়িয়ে মুকুলের হাত ধরে বিজেপিতে যোগ তৃণমূলের প্রতিষ্ঠাতার

গত একবছর সময় ধরে বিজেপি শিবিরে রয়েছেন তৃণমূলের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মুকুল রায়। শুক্রবার মালদহ কলেজ অডিটোরিয়ামে দলীয় কর্মসূচীতে হাজির ছিলেন বিজেপির জাতীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মুকুল রায়। ওই সভা থেকেই তৃণমুলের দুই ব্রাত্য নেতা সম্পর্কে মুকুল বাবু বললেন, “এই জেলার হেভিওয়েট নেতা তথা রাজ্যের প্রাক্তন দুই মন্ত্রী কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী ও সাবিত্রী মিত্র দলের কাছে ব্রাত্য নয়। বিজেপিতে যোগ দেওয়ার আবেদন করলে তা নিয়ে ভাববে দল।”

আরও পড়ুন- ‘দলবল নিয়ে মমতার বাড়িতে চড়াও হয়েছিল ববি, এখন সে মেয়র…’

আরও পড়ুন- মমতার চাপ বাড়িয়ে মুকুলের হাত ধরে বিজেপিতে যোগ তৃণমূলের প্রতিষ্ঠাতার

একদা তৃণমূল কংগ্রেসের দুই নম্বর ব্যক্তির মুখে এই ধরনের কথা ঘিরে জল্পনা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে। জল্পনা আরও জোরাল হয়েছে চাঞ্চল্যকর আরও একটি তথ্য ঘিরে। রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী এবং বিজেপি মুকুল রায় এক সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ সময় ট্রেন যাত্রা করেছেন। এক কামরাতেই ছিলেন মুকুল এবং কৃষ্ণেন্দু।

আরও পড়ুন- মমতার চাপ বাড়িয়ে মুকুলের হাত ধরে বিজেপিতে যোগ তৃণমূলের প্রতিষ্ঠাতার

এই বিষয়ে মুখ খুলেছেন তৃণমূল নেতা কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী। তিনি বলেন, “বিজেপিতে যাওয়ার কোন প্রশ্ন নেই। আমি মমতা বন্দোপাধ্যায়ের একনিষ্ঠ সৈনিক।” ট্রেন সফরের বিষয়ে তিনি জানিয়েছেন যে মুকুল রায় যে ট্রেনে মালদহ আসেন। সেই ট্রেনের একই কামরাতে তিনিও ছিলেন। তবে আসন আলাদা। বিজেপি নেতা মুকুল রায় বা বিজেপির কোন নেতার সঙ্গে কোনও কথা হয়নি কৃষ্ণেন্দুবাবুর।

আরও পড়ুন- মমতার চাপ বাড়িয়ে মুকুলের হাত ধরে বিজেপিতে যোগ তৃণমূলের প্রতিষ্ঠাতার