মঞ্চে বক্তব্য রাখছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। মুকুল রায়কে অল-রাউন্ডার বলে সম্বোধন করলেন দিলীপ। বললেন,’দার্জিলিং গিয়েছিলাম, কোনও ঝান্ডা নিয়ে যাইনি। দিদির ভাইরা গুন্ডা লাগিয়েছিল। তা্ পালিয়ে আসিনি। তিনদিন পাহাড়ে ছিলাম।’ মুখ্যমন্ত্রীকে আক্রমণ করেদিলি্র বললেন, যত অভিশাপ দেবেন, তত বিজেপি বাড়বে।যাকে নিয়ে গড়েছিলেন, সেই মুকুল দা এখন আমাদের দলে।’ বিজেপি দরজা খোলা রেখেছে, বিজেপিতে যোগ দিতে আহ্বান জানালেন দিলীপ ঘোষ।

তৃণমূলকে কটাক্ষ করে দিলীপ ঘোষ বললেন, ‘ভুবনেশ্বরের টিকিট কাটার আগে বিজেপিতে চলে আসুন।’  15:06:39

মঞ্চে বক্তব্য রাখছেন মুকুল রায়। পাল্টে গিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ডেঙ্গি প্রসঙ্গ তুলে আক্ষেপ মুকুল রায়ের। ‘বাংলায় পুলিশ রাজ চলছে।’ রাজ্য সরকারকে তোপ মুকুলের।কটাক্ষ করে মুকুল বললেন, ‘তৃণমূলের স্লোগান ছিল বদলা ন, বদল চাই। বদল হয়েছে সামান্য, বদলা চলছে।’ বাংলায় একটা শিল্পপতিও আসেনি, বললেন মুকুল।

‘কোনও কলেজে পড়ানোর রেকর্ড নেই। তিনি আজ কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য।’ বললেন মুকুল রায়। মিডিয়া রোজ জানতে চাইছে, মুকুল তৃণমূল ছাড়লেন কেন? মুকুল বললেন, ‘প্রথম কারণ, যা প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম, তার একটাও পূরণ করতে পারিনি। সেদিন একটা ফাইল দেখিয়েছিলাম। আজ সেটা দেখাব। তৃণমূলের কোনও নেতা বা মন্ত্রী থাকলে জবাব দেবেন।’ ফাইল দেখিয়ে মুকুল বললেন, ‘বিশ্ব বাংলা হল একটা কোম্পানি, যার মালিকের নাম অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।’ বললেন, ‘জাগো বাংলার মালিকের নামও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

‘সংখ্যালঘু উন্নয়নের নামে যেটা চলছে, তার নাম সংখ্যালঘু তোষণ। তোষণ নীতিতে সাম্প্রদায়িকতার জন্ম দিচ্ছে। সংখ্যালঘুদের কোনও উন্নয়ন হয়নি।’ তোপ মুকুলের।

‘নাকতলা উদয়ন সংঘের বিজ্ঞাপনে কাদের নাম রয়েছে। রয়েছে আইকোর, এমপিএস ও প্রয়াগ, এগুলি চিটফান্ড সংস্থা।’  কাগজ দেখিয়ে পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে তোপ মুকুলের। প্রয়াগের কর্ণধারের পাশে পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেছিলেন, দেখে ভালো লাগছে প্রয়াগ অর্থনৈতিক উন্নতি ও বেকারত্ব ঘোচানোর লক্ষ্যে কাজ করছে।

সারদা প্রসঙ্গে বিস্ফোরক মুকুল রায়, বললেন, ‘দার্জিলিং-এর বৈঠকে আমি নিজে ছিলাম।  ছিলেন মুকুল রায়।  প্রতিদিনের অফিসে তিনবার বৈঠক হয়েছিল। শুভাপ্রসন্নের  বাড়িতে বৈঠক হয়েছিল। সুদীপ্ত সেন ট্যুরিজম, অ্যাম্বুলেন্স, মিডিয়ায় কয়েক কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছিলেন। আরও অনেক বৈঠক হয়েছে। ‘

অনেক ভেবে-চিন্তে বিজেপিতে যোগ দিয়েছি। তৃণমূলে দমবন্ধ হয়ে আসছিল। তৃণমূল আর কোনও পার্টি নেই। কোম্পানিতে পরিণত হয়েছে। বক্তব্য শেষে বললেন মুকুল রায়।  14:32:05

মঞ্চে বক্তব্য রাখছেন রাহুল সিনহা। বললেন, রাহুল-মুকুলকে নিয়ে কুৎসা ছড়াচ্ছে তৃণমূল। ‘আমি কোনও জেলখাটা, চোর-চিটিংবাজনেতার সঙ্গে দেখা করব না’। সুদীপের সঙ্গে বৈঠকের জল্পনা প্রসঙ্গে বললেন রাহুল সিনহা।বিজেপি ছাড়ছি না, স্পষ্ট বার্তা দিলেন তিনি।

রাজ্য সরকারকে কটাক্ষ করে রাহুম সিনহা বললেন, ‘এখানে বিসর্জন করা যাবে না, রামনবমীর মিছিল বের করা যাবে না, শুধু ঈদ পালন করা যাবে, মহরম পালন করা যাবে।’ ‘সারা বাংলা জুড়ে আপনার সব ছবিতে হয় আপনি হিজাব পড়ে আছেন, নয়ত হাত তুলে আল্লাকে ডাকছেন।’  মুখ্যমন্ত্রীকে সরারি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ রাহুলের। 14:20:36

শুরু হল বিজেপির জনসভা। দিলীপ ঘোষ, রাহুল সিনহার মত বিজেপি নেতাদের পাশে বসিয়ে এদিন মঞ্চ থেকে কি বার্তা দেবেন মুকুল রায়, সেদিক তাকিয়ে গোটা রাজ্য। ইতিমধ্যেই মঞ্চে হাজির হয়েছেন মুকুল রায়।  তাঁকে স্বাগত জানান বিজেপি নেতা ও সমর্থকেরা। মুকুল রায়ের উপস্থিতিতে অনেকে যোগ দিলেন বিজেপিতে। 14:11:32

Live Updates…