কলকাতা: মুকুল রায়ের নিশানায় তৃণমূলনেত্রী। উত্তেজনা ছড়াতেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাহাড় সফর বলে তোপ দাগলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। একইসঙ্গে তৃণমূলনেত্রীর বিরুদ্ধে আইন ভাঙারও অভিযোগ তুলেছেন মুকুল। সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছেন বলেও অভিযোগ মুকুলের।

নাগরিকত্ব আইন নিয়ে শুরু থেকেই সুর চড়াচ্ছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নাগরিকত্ব আইন বাতিলের দাবি জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এমনকী নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে রাজ্য বিধানসভায় প্রস্তাব পাশ করানো হবে বলেও জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সিএএ-র প্রতিবাদে রাজ্যজুড়ে প্রতিবাদ কর্মসূচি নিয়েছে তৃণমূল। সেই কর্মসূচি পালনেই বুধবার পাহাড়ে মিছিল করেন তৃণমূলনেত্রী। দার্জিলিঙের ভানু ভক্ত ভবন থেকে চকবাজার পর্যন্ত সিএএ-এনআরসি বিরোধী মিছিল করেন মমতা। মিছিলে পা মেলান পাহাড়ের গোর্খা, লেপচা-সহ পাহাড়ের একাধিক জনগোষ্ঠী। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দাবি, নাগরিকত্ব আইনের জেরে বহু গোর্খা সম্প্রদায়ের মানুষের নাম বাদ গিয়েছে। মমতার এই দাবি সম্পূর্ণ ভুল বলে অভিযোগ করেছেন মুকুল। এই প্রসঙ্গে মুকুল রায়ের আরও দাবি, ‘সিএএ-র মাধ্যমে কোনও গোর্খার নাম বাদ যায়নি। বরং এই আইনের জেরে আরও মানুষ নাগরিকত্ব পাবেন। সিএএ-র মাধ্যমে কারও নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়া হচ্ছে না।’

এরই পাশাপাশি নাগরিকত্ব আইন ইস্যুতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আন্দোলনকেও কটাক্ষ করেছএন মুকুল। তৃণমূলনেত্রীর বিরুদ্ধে আইন ভাঙারও অভিযোগ তুলেছেন। মমতা পাহাড়ে উত্তেজনা বাড়াতে গিয়েছেন বলেও অভিযোগ মুকুলের। তিনি বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রী দার্জিলিং গিয়েছেন পাহাড়কে অশান্ত করতে। গণতান্ত্রিক পরিকাঠামোয় দাঁড়িয়ে একজন মুখ্যমন্ত্রী আইন ভাঙছেন৷ সংবিধান বহির্ভূত কাজ করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।’

কেন্দ্রের আইন মানতে বাধ্য রাজ্যগুলি। সেই আইন কার্যকরা না করার হুঁশিয়ারি দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সংবিধানকেই অবমাননা করছেন বলে অভিযোগ বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের। বুধবার নাগরিকত্ব আইন ইস্যুতে পাহাড়ে সভা-মিছিল করেন মুখ্যমন্ত্রী। পাহাড়ে দাঁড়িয়ে আরও একবার জানান, পশ্চিমবঙ্গে কোনওমতেই এনআরসি, নাগরিকত্ব আইন, এনপিআর কার্যকর করবেন না।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ