আবুধাবি: বিরাট কোহলির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরকে হারিয়ে প্লে-অফের ছাড়পত্র জোগাড় করে নিলে রোহিতহীন মুম্বই ইন্ডিয়ান্স৷ বুধবার আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্সকে ৫ উইকেটে হারায় তারা৷ সেই সঙ্গে ১২ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে প্রথম দল হিসেবে প্লে-অফে পৌঁছে গেল মুম্বই ইন্ডিয়ান্স৷

১৬৫ রান তাড়া করতে নেমে ৫ বল বাকি থাকতেই ম্যাচ জিতে নেয় মুম্বই ইন্ডিয়ান্স৷ এই ম্যাচ জয়ের সঙ্গে সঙ্গে প্লে-অফে পৌঁছে গেল নীতা আম্বানির দল৷ শেষ দু’টি ম্যাচ হারলেও রান-রেট বেশি থাকায় প্লে-অফে পৌঁছেতে সমস্যা হবে না মুম্বইয়ের৷ চোটের জন্য এদিনও মাঠে নামতে পারেননি ক্যাপ্টেন রোহিত৷ কিন্তু রান তাড়া করতে কোনও সমস্যা হয়নি মুম্বইয়ের৷

দুই ওপেনার দ্রুত ডাগ-আউটে ফিরলেও সূর্যকুমার যাদবের দুরন্ত ব্যাটিংয়ে হাসতে হাসতে ম্যাচ জিতে নেয় মুম্বই৷ ৪৩ বলে তিনটি ছয় ও এক ডজন বাউন্ডারির সাহায্যে ৭৯ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে মুম্বইকে জেতান সূর্যকুমার৷ স্টাইক-রেট ১৮৩.৭২৷ দুই ওপেনার কুইন্টন ডি’কক ১৮ ও ইশান কিষান ২৫ রান করেন৷ তবে বাকিরা রান পাননি৷ সৌরভ তিওয়ারি ৫ রান, ক্রুনাল পান্ডিয়া ১০ ও হার্দিক পান্ডিয়া ১৭ রান করে আউট হন৷ দলকে জিতিয়ে ম্যাচের সেরা সূর্যকুমার৷

এর আগে প্রথম ব্যাটিং করেন মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের সামনে ১৬৫ রানের টার্গেট রেখেছিল৷ একটা সময় মনে হয়েছিল মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের সামনে ২০০ বেশি রানের টার্গেট দেবে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর৷ কিন্তু জসপ্রীত বুমারাহের ভয়ংকর বোলিংয়ের সামনে কোনওক্রমে দেড়শো রানের গণ্ডি টপকেছে আরসিবি৷ নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৬৪ রান তুলেছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স৷

ওপেনিং জুটিতে ৭১ রানের পার্টনারশিপ গড়লেও একই ওভারে পারিক্কল ও শিভম দুবেকে ডাাগ-আউটে ফেরেত পাঠিয়ে মুম্বইয়কে ম্যাচ ফেরান বুমরাহ৷ ৪৫ বলে এক ডজন বাউন্ডারি ও একটি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ৭৪ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন পারিক্কল৷ এদিন আইপিএলে তাঁর একশোতম উইকেট শিকার করেন বুমরাহ৷ ৪ ওভারে একটি মেডেন-সহ মাত্র ১৪ রান খরচ করে ৩টি উইকেট তুলে নেন মুম্বইয়ের এই ডানহাতি পেসার৷

জেলবন্দি তথাকথিত অপরাধীদের আলোর জগতে ফিরিয়ে এনে নজির স্থাপন করেছেন। মুখোমুখি নৃত্যশিল্পী অলোকানন্দা রায়।