রাঁচি: সিরিজের তৃতীয় ওয়ান ডে ম্যাচে শুক্রবার ঝাড়খন্ড রাজ্য সংস্থার ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মুখোমুখি ভারত-অস্ট্রেলিয়া। ধোনির হোম গ্রাউন্ড হিসেবে পরিচিত এই স্টেডিয়ামে টিম ইন্ডিয়ার ম্যাচ থাকলেই আলাদা উত্তেজনা গ্রাস করে মাহি’কে নিয়ে। অন্যথা নয় এবারও। ঘরের মাঠে মাহির সম্ভবত শেষ ওয়ান ডে এটাই। শুক্রবার ম্যাচের আগে বুধবার রাঁচি পৌঁছল ভারতীয় দল। সেখানে পৌঁছে বুধের সন্ধ্যায় ঘরের ছেলের বাড়িতেই ভুরিভোজে অংশ নিলেন ক্রিকেটার থেকে সাপোর্ট স্টাফ প্রত্যেকেই।

রাঁচির এই স্টেডিয়ামের একটি স্ট্যান্ড কর্তৃপক্ষ নামাঙ্কিত করতে চলেছে ঘরের ছেলে মহেন্দ্র সিং ধোনির নামে। এই ঘটনা স্বভাবতই মাহি অনুরাগীদের মধ্যে উত্তেজনা বৃদ্ধি করেছে কয়েকগুণ। কিন্তু বাইশ গজে যেমন তাঁর ক্ষুরধার মস্তিষ্ক-প্রত্যুৎপন্নমতিত্ব ঈর্ষার কারণ বিপক্ষের কাছে, ঠিক তেমনই মাঠের বাইরেও তাঁর সিদ্ধান্ত ফের নজর কাড়ল অনুরাগীদের। ঝাড়খন্ড ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের তরফ থেকে ধোনিকে স্ট্যান্ডটি উদ্বোধনের জন্য আমন্ত্রণ জানানো হলেও তা গ্রহণ করেননি মাহি।

আরও পড়ুন: অতিরিক্ত সময়ের থ্রিলার জয়ে কোয়ার্টারে পোর্তো

রাজ্য ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সেক্রেটারির কথায় মাহি তাদের সাফ জানিয়েছেন, ‘আমি এই স্টেডিয়ামের একটা অংশ। ঘরের ছেলে হয়ে ঘরের জিনিস কীভাবে উদ্বোধন করব?’ সে যাইহোক, শুক্রবার ম্যাচের আগে বুধবার সন্ধ্যায় ভারতীয় দলকে নিজের বাড়িতেই গালা ডিনারে আমন্ত্রণ জানান ধোনি এবং তাঁর স্ত্রী সাক্ষী।

আরও পড়ুন: মুস্তাক আলির সুপার লিগের আগে আনফিট রাহানে

প্রাক্তন বিশ্বজয়ী অধিনায়কের বাড়িতে স্মরণীয় সেই সন্ধের মুহূর্ত ফ্রেমবন্দী করে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন রিস্ট স্পিনার যুবেন্দ্র চাহাল। ক্রিকেটারেরা তো ছিলেনই। পাশাপাশি কোচ রবি শাস্ত্রী, ফিজিও প্যাট্রিক ফারহার্ট প্রত্যেকেই উপস্থিত হয়েছিলেন ধোনির আমন্ত্রণে। টুইটারে সেই ছবি পোস্ট করে চাহাল ধন্যবাদ জানান ধোনি এবং তাঁর স্ত্রী-কে।

আরও পড়ুন: সিরিজ জয়ের দোরগোড়ায় প্রোটিয়ারা

পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে শুক্রবার অজিদের বিরুদ্ধে মাঠে নামবে টিম ইন্ডিয়া। বিশ্বকাপের মহড়া সিরিজে ব্যবধান বাড়িয়ে সিরিজ জয় নিশ্চিত করাই প্রাথমিক লক্ষ্য ভারতীয় দলের। তবে ঘরের মাঠে বাড়তি নজর অবশ্যই থাকবে মহেন্দ্র সিং ধোনির দিকে। হায়দরাবাদে প্রথম ম্যাচে দলকে রান তাড়া করতে ভরসা জুগিয়েছিল তাঁর ব্যাট। তবে দ্বিতীয় ম্যাচে ন’বছর পর গোল্ডেন ডাকের শিকার হন মাহি।