নয়াদিল্লি: মহেন্দ্র সিং ধোনি কবে জাতীয় দলে ফিরবেন, তা নিয়ে ধোঁয়াশা অব্যাহত৷ বিশ্বকাপ জয়ী ভারত অধিনায়ক কি একেবারেই ব্যাট-প্যাড তুলে রাখবেন, না আগামী বছর টি-২০ বিশ্বকাপ পর্যন্ত আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বিরাজমান খাকবেন, তা নিয়েও সংশয় রয়েছে৷ তবে শোনা যাচ্ছে, চোটের জন্যই এই মুহূর্তে জাতীয় দলের বাইরে রয়েছেন ধোনি৷

বিশ্বকাপ পরবর্তী ভারতীয় দলে এখনও দেখা যায়নি ধোনিকে৷ বিশ্বকাপের পর দু’মাসের ছুটি নিয়ে সেনাবাহিনীর সঙ্গে দেশসেবা করেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক৷ ফলে ক্যারিবিয়ান সফর ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে চলতি সিরিজেও নেই মাহি৷ কিন্তু শোনা যাচ্ছে, ছুটি আরও বাড়ানোয় নভেম্বরে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে টি-২০ সিরিজে পাওয়া যাবে না ধোনিকে৷ ফলে একের পর এক সিরিজ থেকে নিজেকে সরিয়ে রাখা নিয়েও উঠছে প্রশ্ন৷

শোনা যাচ্ছে, ধোনির অনুপস্থিতির কারণ চোট৷ বিশ্বকাপ চলাকালীনই পিঠের ব্যাথায় ভুগছিলেন মাহি৷ কারণ আইপিএল-এ কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের বিরুদ্ধে ব্যাটিং করার সময় পিঠে ব্যাথা অনুভব করেছিলেন ধোনি৷ এই ম্যাচে ৭৯ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেছিলেন সুপার কিংস ক্যাপ্টেন৷ ম্যাচের পর সাংবাদিক বৈঠকে মাহি জানিয়েছিলেন, ‘চোটটা খারাপ, তবে কতটা খারাপ, তা বলতে পারব না৷’ পিঠে ব্যাথা নিয়েই বিশ্বকাপ খেলায় চোট আরও বাড়ে৷ এছাড়াও বিশ্বকাপে কবজিতে চোট পেয়েছিলেন টিম ইন্ডিয়ার উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান৷ সুত্রের খবর নভেম্বরের মধ্যে ফিট হয়ে উঠবেন ধোনি৷

সুত্রের খবর, পুরোপুরি ফিট না-হয়ে মাঠে নামতে চান না ধোনি। কেরিয়ারে সায়াহ্নে চোট নিয়ে খেলে সেরাটা দিতে পারবেন না, এমনটা চান না মাহি৷ এতে দলেরই ক্ষতি হবে৷ দেশের ক্রিকেটের জন্য ধোনির এই ভাবনায় মুগ্ধ ক্যাপ্টেন কোহালি। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টি-২০ সিরিজ শুরুর আগে ধোনি সম্পর্কে বলতে গিয়ে বিরাট জানিয়েছিলেন, শুধু ভারতীয় ক্রিকেটের কথাই ভাবেন ধোনি। টিম ম্যানেজমেন্টের ভাবনাও প্রতিফলিত করার চেষ্টা করে মাহি৷