কলকাতা: বৃহস্পতিবারই ২০২০ আইপিএল নিলাম হয়েছে৷ দল গুছিয়ে নিয়েছে আটটি ফ্র্যাঞ্চাইজি৷ রেকর্ড দাম দিয়ে প্যাট কামিন্সকে কিনেছে কলকাতা নাইটরাইডার্স৷ নিলামের টেবলে নিজে না-থাকলেও দল গুছিয়ে নিয়েছে ধোনির দল চেন্নাই সুপার কিংসও৷ কিন্তু সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের আইপিএল দলে জায়গা হল না সুপার কিংস ক্যাপ্টেন মহেন্দ্র সিং ধোনির৷

নিজের ফ্যান্টাসি আইপিএল দলে তিন বারের আইপিএল ট্রফি জয়ী সিএসকে অধিনায়ক ধোনিকে রাখেননি সৌরভ। উইকেটকিপার হিসেবে ধোনির পরিবর্তে দলে রেখেছেন ঋষভ পন্থকে। যা নিয়ে ইতিমধ্যেই ক্রিকেটমহলে বিতর্ক শুরু হয়ে গিয়েছে। তবে সৌরভ বিষয়টিকে মজা হিসেবে ব্যাখা করছেন৷ ধোনি নয়, সেই দলে নিজেকে রেখেছেন প্রাক্তন নাইট অধিনায়ক৷

শুক্রবার একটি অনুষ্ঠানে সৌরভকে পরের বছরের আইপিএলের জন্য ফ্যান্টাসি দল তৈরি করতে বলা হয়েছিল। যে দলে দু’বারের ট্রফি জয়ী ধোনিকে রাখেননি সৌরভ৷ বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট তথা প্রাক্তন ভারত ও কেকেআর অধিনায়কের দল হল: সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় (অধিনায়ক), রোহিত শর্মা, বিরাট কোহালি, ডেভিড ওয়ার্নার, ঋষভ পন্থ, আন্দ্রে রাসেল, জশপ্রীত বুমরাহ, মার্কাস স্টওনিস, রিয়ান পরাগ, জোফরা আর্চার, রবীন্দ্র জাডেজা। উইকেটকিপার হিসেবে ধোনির জায়গায় পন্তই পছন্দ সৌরভের৷

এছাড়াও আইপিএল নিলামের ইতিহাসে সবেচেয়ে দামি ক্রিকেটার কামিন্সকে কেনা নিয়েও সৌরভের বক্তব্য, ‘আমার মনে হয় না, কামিন্সের দাম অনেক বেশি। নিলামে কোনও ক্রিকেটারের দাম ঠিক হয় তার চাহিদার উপর৷ বিশেষ করে এই ধরনের ছোট নিলামে ক্ষেত্রে। এই ধরনের নিলামেই ১৪ কোটি দাম পেয়েছিল বেন স্টোকস৷

ইংল্যান্ড অল-রাউন্ডারকে ছাপিয়ে বৃহস্পতিবার কামিন্সকে ১৫ কোটি ৫০ লক্ষ টাকায় কেনে কেকেআর৷ নিলামে কামিন্সকে নিয়ে প্রথমে দর কষাকষি হয় দিল্লি ক্যাপিটালস ও আরসিবি-র মধ্যে৷ কিন্তু ১০ কোটির পর থেকে দর হাঁকাতে শুরু করে কেকেআর৷ নূন্যতম ২ কোটি থেকে শেষ পর্যন্ত ১৫.৫০ কোটি টাকায় কামিন্সকে তুলে নেয় কেকেআর৷ এছাড়াও ইংল্যান্ড ওয়ান ডে বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক ইয়ন মর্গ্যানকে ৫ কোটি ৫০ লক্ষ টাকায় নিয়েছে কলকাতা নাইট রাইডার্স।

কামিংস এর আগে ২০১৪ সালে আইপিএলে কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে খেলেছিলেন। সে বার অবশ্য মাত্র একটা ম্যাচ খেলেছিলেন তিনি। ২০১৭ সালে দিল্লি ডেয়ারডেভিলস তাঁকে ৪.৫ কোটি টাকায় নিয়েছিল। তিনি নিয়েছিলেন ১৫ উইকেট। পরের মরসুমে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স তাঁকে ৫.৪ কোটি টাকায় নিয়েছিল। কিন্তু চোটের জন্য তিনি ছিটকে যান প্রতিযোগিতা থেকে। বৃহস্পতিবারের নিলামে তাঁকে ফের নিয়েছে কেকেআর।

বছর ছাব্বিশের ডানহাতি এই অজি পেসার আগেও নাইটদের হয়ে খেলেছেন৷ ২০১৪ আইপিএলে কেকেআর-এর হয়ে একটি মাত্র ম্যাচ খেলেন কামিন্স৷ তারপর আর নাইটদের হয়ে খেলেননি তিনি৷ ২০১৭ শেষবার দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের হয়ে খেলেছিলেন৷ কিন্তু গত মরশুমে আইপিএল খেলেননি কামিন্স৷ এ পর্যন্ত তিনটি আইপিএলে (২০১৪, ২০১৫ ও ২০১৭) মোট ১৬টি ম্যাচে ১৭টি উইকেট নিয়েছেন কামিন্স৷ সেরা বোলিং ২০ রানে দু’ উইকেট৷