গ্যাংটক: গত কয়েকদিন ধরেই দেশের বিভিন্ন জায়গায় শুরু হয়েছে প্রবল বৃষ্টি, এমনকি ধসের মারাত্মক চেহারাও দেখা গিয়েছে। এবার সামনে এল এক ভয়াবহ ভিডিও। মুহূর্তের মধ্যে ধসে পড়ল এক প্রাক্তন সাংসদের বাড়ি।

উত্তর সিকিমের মানগান বাজারে ঘটেছে এই ভয়াবহ ঘটনা। চারতলা বাড়ির একটা অংশ ভেঙে পড়েছে চোখের নিমেষে।

রাজ্যসভার প্রাক্তন সাংসদ লিওনার্দ সোলোমান সারিং-এর বাড়ি এটি। গত দু’দিন ধরে টানা বৃষ্টি হতে থাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে বলে জানা গিয়েছে। ইতিমধ্যেই প্রকাশ্যে এসেছে সেই ভিডিও। আর তাতে দেখা যাচ্ছে হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ছে বাড়িটি।

সঙ্গে সঙ্গে প্রশাসনিক তৎপরতায় পুরো বাড়ি খালি করে ফেলা হয়। এই ঘটনায় কেউ হতাহত হননি বলে জানা গিয়েছে। ওই ব্যাক্তি পরপর দু’বারের সাংসদ ছিলেন বলে জানা গিয়েছে।

সিকিমের পাশাপাশি রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে পশ্চিমবঙ্গেও। ১২ থেকে ১৬ জুলাই পর্যন্ত এই অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে।

শনিবার জলপাইগুড়ির গজলডোবা তিস্তা ব্যারেজ থেকে প্রায় তিন হাজার কিউমেক জল ছাড়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। যার দরুন তিস্তা নদী সংলগ্ন অসংরক্ষিত এলাকায় লাল সংকেত এবং সংরক্ষিত এলাকায় হলুদ সংকেত জারি করেছে প্রশাসন।।

শুক্রবার থেকেই জলপাইগুড়িতে শুরু হয়েছে লাগাতার মুষলধারা বৃষ্টি। যারফলে একদিকে বৃষ্টির জল আর অন্যদিকে তিস্তার জল ঢুকে জলমগ্ন অবস্থা জলপাইগুড়ির তিস্তা লাগোয়া খড়িয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের উত্তর সুকান্ত নগর কলোণী ও দক্ষিন সুকান্ত নগর কলোনীর একাংশ।

আর এতে বেজায় সমস্যায় পড়েছেন ওই এলাকার বাসিন্দারা। স্থানীয় বাসিন্দা সিতানাথ বর্মন বলেন, “আমরা এই এলাকার বাসিন্দা হওয়া সত্ত্বেও এই এলাকায় কোনও উন্নয়ন মূলক কাজ হচ্ছে না। এলাকার মানুষের নদী পারাপারের জন্য স্থানীয় পঞ্চায়েত থেকে দুটি বাঁশের সাঁকো দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু বর্ষার মরশুম শুরু হয়ে গেলেও সেই সাঁকো এখনও পর‍্যন্ত তৈরিই হল না।”

প্রশ্ন অনেক: তৃতীয় পর্ব