নয়াদিল্লি: পুলওয়ামাতে ৪০ জওয়ানের রক্তের বদলা নিয়েছে ভারতীয় বায়ুসেনা। পাকিস্তানের ঘরে ঢুকে একাধিক জঙ্গি ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দিয়ে এসেছে এয়ারফোর্সের একাধিক যুদ্ধবিমান। পাকিস্তানের মূল ভূখণ্ডের বালাকোটে জইশ-ই-মহম্মদের ট্রেনিং ক্যাম্প কার্যত ধূলিসাৎ করে দিয়ে আসা হয়েছে। ইন্ডিয়ান এয়ারফোর্সের এই কীর্তিতে কতজন জঙ্গি খতম হয়েছে সেই সংখ্যা নিয়ে শুরু হয়েছে তরজা।

যদিও এই বিষয়ে স্পিকটি নট সরকার। বায়ুসেনার তরফেও কিছু জানানো হয়নি। এমনকি বিজেপির তরফেও সংখ্যা নিয়ে কোনও মন্তব্য করা হয়নি এতদিন। অবশেষে জঙ্গি নিধনের সংখ্যা নিয়ে মুখ খুললেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। জানালেন, “এয়ার স্ট্রাইকে ২৫০-র বেশি জঙ্গিকে খতম করা হয়েছে।”

জঙ্গি খতমের বিষয়ে মুখ খোলার পাশাপাশি অমিত শাহ আরও বলেন, পুলওয়ামা হামলার পর সবাই ভেবেছিল এই মুহূর্তে সার্জিকাল স্ট্রাইক চালানো যাবে না। এখন কী হবে? আর তখনই হামলার ১৩ দিনের মাথায় প্রধানমন্ত্রী মোদী সরকার পাকিস্তানের মাটিতে এয়ার স্ট্রাইক চালিয়ে আসল। আর তা বলতে গিয়ে বিজেপির সর্ব ভারতীয় সভাপতির দাবি, এই এয়ারস্ট্রাইকে ২৫০-রও বেশি জঙ্গিকে খতম করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত এই এয়ারস্ট্রাইকের পর থেকে বিরোধীরা প্রশ্ন তুলতে থাকে যে কতজন জঙ্গির মৃত্যু হয়েছে। কোথায় বোমা পরেছে। এমনকি প্রমাণও চাওয়া হয়েছে এই বিষয়ে। সেখানে দাঁড়িয়ে অমিত শাহের বক্তব্য যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে।