দেশের প্রথম অকংগ্রেসী প্রধানমন্ত্রী হলেন মোরারজি দেশাই ৷ তবে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার আগে তিনি উপ প্রধানমন্ত্রী , স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন ৷ ১৯৫২ সালে তিনি হয়েছিলেন স্বাধীন ভারতের বম্বে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এবং তাঁরই আমলে বম্বে ভেঙে মহারাষ্ট্র এবং গুজরাট দুটি রাজ্যের জন্ম হয়েছিল৷

তাঁর জন্মদিনটি হল ২৯ফেব্রুয়ারি ৷ ১৮৯৬ সালের ২৯ ফেব্রুয়ারি ব্রিটিশ ভারতের বম্বে প্রেসিডেন্সির অন্তর্গত বালসার জেলায় (যা পরবর্তীকালে গুজরাতে অবস্থিত) তাঁর জন্ম হয়৷ প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মোরারজি দেশাই দীর্ঘদিন ধরে সামলেছেন অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব৷ তিনি সাধারণ এবং অন্তর্বর্তী মিলে মোট ১০টি বাজেট পেশ করেন৷ শুধু তাই নয় মোরারজি দেশাই দুবার বাজেট পেশ করেছিলেন একেবারে তাঁর নিজের জন্মদিনে -২৯ ফেব্রুয়ারি ১৯৬৪ এবং ২৯ ফেব্রুয়ারি ১৯৬৮৷

তবে মোরারজি দেশাইয়ের দীর্ঘ জীবনের একটা আলোড়িত দিক হল তাঁর ‘ইউরিন থেরাপি ’ অর্থাৎ নিজ মূত্র পান করা ৷ এক সময় এটা খুবই আলোচনার বিষয় হয়েছিল যে মোরারজি দেশাই নিজ মূত্র পান করতেন এবং তিনি অন্যদের সুস্থ থাকার উপায় হিসেবে এই পদ্ধতি অবলম্বন করার জন্য পরামর্শ দিতেন৷ তিনি মারা যান ১৯৯৫ সালের ১০ এপ্রিল অর্থাৎ প্রায় শতবর্ষের কাছাকাছি সময় বেঁচে ছিলেন ৷

মার্কিন সাংবাদিক ডন রাথানকে তিনি এই বিষয়ে দীর্ঘ এক সাক্ষাৎকারও দিয়েছিলেন ৷ সেই সাক্ষাৎকারে মোরারজি দেশাই জানিয়েছিলেন, যাদের চিকিৎসা করানোর মতো অবস্থা নেই তারা নিজ মূত্র পান করতে পারেন৷ তিনি বিশ্বাস করতেন, কেউ যদি তার নিজে মূত্র দিয়ে চোখ ধোয় তাহলে তাদের কখনও চোখে ছানি পড়বে না৷

অবশ্য বেশ কিছু বিজ্ঞানী এই বিষয়ে গবেষণা করেছেন৷ তাদের দাবি, ঝুঁকি নিয়ে সামান্য পরিমাণ নিজ মূত্র পান করলে বিশেষ কোনও ক্ষতি হয় না৷ কিন্তু সেক্ষেত্রে একটা বড় ঝুঁকি থেকে যায় কারণ তাতে ব্যকটেরিয়াজনিত দূষণ থাকে, সম্ভাব্য ড্রাগ এক্সপোজার এবং উচ্চ খনিজ সামগ্রীজনিত ভরা থাকলে ৷ আর এইগুলি থাকার জন্য তা পান করলে কিডনি চরম ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে৷