নয়াদিল্লি: তিন সপ্তাহের ব্যবধানে ‌ মূল্যায়ন সংস্থা মুডিজ ইনভেস্টর সার্ভিস ভারতের বৃদ্ধির হার আগের তুলনায় অর্ধেকের কম করে দিল। এবার এই মূল্যায়ন সংস্থার নিরিখে ভারতের ২০২০ সালে বৃদ্ধির হার ২.৫ শতাংশ। যেখানে ৩সপ্তাহ আগে এই হার ধরা হয়েছিল ৫.৩ শতাংশ।

শুক্রবার প্রকাশিত গ্লোবাল ম্যাক্রো আউটলুক ২০২০-২১ অনুসারে, ‌ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ২১ দিনের লকডাউন ঘোষণা করার ফলে কমে আসছে আয় এবং অভ্যন্তরীণ চাহিদা ও ঘুরে দাড়ানোর গতি। তবে আন্তর্জাতিক মূল্যায়ন সংস্থা আগের মতই ২০২১ সালে ভারতের বৃদ্ধির হার ৫.৮ শতাংশ ধরেছে। সর্বশেষ ২.২ শতাংশ বৃদ্ধি কমানোর হয়েছে আগের ০.১ শতাংশ নিচে নামানোর পরিপন্থীতে।

এর আগে মুডিজ চলতি মাসের প্রথমদিকে এই হার কমিয়ে ৫.৩ শতাংশ করেছিল যেখানে তার আগে ফেব্রুয়ারীতে ধরা হয়েছিল ৫.৪ শতাংশ। বলা হয়েছিল দেশের বৃদ্ধির হার ৫ শতাংশের তলায়‌ চলে যেতে পারে যদি ভাইরাসকে নিয়ন্ত্রণ না করতে পারা যায়। প্রসঙ্গত, এই লক ডাউনের আগে আর এক আন্তর্জাতিক সংস্থা এস আন্ড পি গ্লোবাল রেটিংস ভারতের বৃদ্ধির হার ২০২০ সালে কমিয়ে ভবিষ্যৎবাণী করেছিল ৫.২ শতাংশ।

ফাইল ছবি

আবার অর্গানাইজেশন ফর ইকোনমিক কো-অপারেশন এন্ড ডেভেলপমেন্ট এই বছরে বৃদ্ধির হার কমিয়ে করেছে ৫.১ শতাংশ। আবার মুডিজ চিনের বৃদ্ধির হারও কমিয়ে এবার ভবিষ্যদ্বাণী করেছে এই বছরের জন্য ৩.৩ শতাংশ যেখানে আগে ধরা হয়েছিল ৪.৮ শতাংশ। এই মূল্যায়ন সংস্থার নিরিখে লক্ষ্য করা গিয়েছে, প্রধান পশ্চিমি দেশে বৃদ্ধির বদলে সংকোচন হচ্ছে। কারণ‌২০২০ সালের প্রথম অর্ধে বৃদ্ধির বদলে জার্মানি, ইটালি, ইউএস, ইউকে এবং ফ্রান্সে সংকোচনের হার যথাক্রমে ৫.৪, ৪.৫ ,৪.৩,৩.৯ এবং ৩.৫ শতাংশ।