হায়দরাবাদ: বড় ঘোষণা রাজ্য সরকারের৷ সন্তানকে স্কুলে পাঠালেই মায়ের অ্যাকাউন্টে সরকার দেবে ১৫ হাজার টাকা৷ প্রতি বছর জানুয়ারি মাসে ওই টাকা দেবে অন্ধ্রপ্রদেশ সরকার৷ মূলত স্কুল-ড্রপ আউট বন্ধ করতেই সরকারের এই সিদ্ধান্ত৷

অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী জগন মোহন রেড্ডি জানিয়েছেন, দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাসকারী পরিবার এই প্রকল্পের আওতায় আসবে। প্রকল্পের নাম রাখা হয়েছে‘আম্মা বোধি’। বিপিএল পরিবারের সন্তান সরকারি, সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত,এমনকি বেসরকারি স্কুলে পড়াশুনা করে, তাঁরা নয়া প্রকল্পের আওতায় আসবেন। তবে উ‍ৎসাহ ভাতা পাওয়ার ক্ষেত্রে বেশ কিছু ‘শর্ত’ আরোপ করা হয়েছে।

প্রথমত, সন্তানকে শুধু স্কুলে পাঠালেই চলবে না। অন্তত ৭৫ শতাংশ দিন উপস্থিতি থাকতে হবে, সেই সঙ্গে বিপিএল রেশন কার্ডও থাকতে হবে। প্রথম শ্রেণি থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত সব পড়ুয়াকে নয়া প্রকল্পের আওতায় আনা হচ্ছে। পাশাপাশি পথশিশু ও অনাথ শিশুদেরও নয়া প্রকল্পের আওতায় আনা হয়েছে। সেক্ষেত্রে ওই উ‍ৎসাহ ভাতা জমা পড়বে যে সংস্থা তাদের দেখভালের দায়িত্বে রয়েছে সেই সংস্থার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে।

তবে সন্তান যদি স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দেয়, তাহলে ওই আর্থিক সাহায্যও বন্ধ করে দেবে সরকার৷ রাজ্যের ৪৩ লাখ মা ও অভিভাবকের জন্য নয়া এই প্রকল্পের ঘোষণা করেছেন অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী জগন মোহন রেড্ডির সরকার এই প্রকল্পের জন্য ২০১৯-২০ সালে ৬৪৫৫ কোটি ৮০ লাখ টাকা বরাদ্দ করেছে৷ এতে রাজ্যের ৪৩ লাখ মা ও অভিভাবক উপকৃত হবে৷ তবে যাঁরা সরকারি কর্মী এবং আয়করদাতা, তাঁরা এই প্রকল্পের সুবিধে পাবেন না।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প