মারগাও: মোহনবাগান আছে মোহনবাগানে! খারাপ সময় যেন কাটতেই চাইছে না বাগানের৷

এবার গোয়ার মাঠে চার্চিল ব্রাদার্সের কাছে এগিয়ে গিয়েও পয়েন্ট খোয়াল সনি-ডিকারাা৷ এই নিয়ে টানা তিন ম্যাচে পয়েন্ট হারাল মোহনবাগান৷ ফিরতি ডার্বিতে হারের পর টানা দুই ম্যাচে এগিয়ে গিয়েও ড্র সনিদের৷ এদিন ম্যাচের ৩৯ মিনিটে ডিকার গোলে এগিয়ে যায় গঙ্গাপারের ক্লাব৷ দ্বিতীয়ার্ধে অবশ্য ছন্দপতন৷ ৭৮ মিনিটে পেনাল্টিতে গোয়ান দলকে সমতায় ফেরান অ্যান্টোনিও উলফ৷ শেষ পর্যন্ত ম্যাচ ড্র হয় ১-১ ব্যবধানে৷

আরও পড়ুন- মার্কিন মুলুকে মূর্তি বসছে বেকহ্যামের

ঘরের মাঠে ০-৩ চার্চিলের কাছে হারের পর এবার অ্যাওয়ে ম্যাচে ১-১৷ চলতি লিগে গোয়ান ক্লাবের বিরুদ্ধে পুরো পয়েন্ট ছিনিয়ে নিতে ব্যর্থ মোহনবাগান৷ শংকরলাল জমানার পর এবার খালিদ জমানাতেও ধারাবাহিকতা নেই বাগানে৷

আরও পড়ুন- ছিটকে গেলেন শাকিব, দলে ফিরলেন গাপ্টিল

দিনের শেষে প্রশ্ন সেই একটাই, আর কবে জিতবে মোহনবাগান৷ ১৬ ম্যাচ শেষে ঝুলিতে ২৩ পয়েন্ট(লিগে ৬ নম্বরে মোহনবাগান)৷ শেষ চার ম্যাচে দারুণ কিছু না করলে প্রথম চারে থাকা কঠিন ডিকাদের৷ বাগানের সুপার কাপ খেলার স্বপ্ন ডুবছে চোরাবালিতে!

ম্যাচের প্রথমার্ধের শেষ দিকে চার্চিলের ডিফেন্সের ভুলে জাল কাঁপিয়ে বাগানকে এগিয়ে দেন ডিকা৷ ক্যামেরুন স্ট্রাইকারের ধারাবাহিক গোল মিস নিয়ে ক্লাব ও সমর্থকদের মধ্যে নানা অসন্তোষ থাকলেও এদিন গোলের সুযোগ হাতছাড়া করেননি ডিকা৷ দ্বিতীয়ার্ধে অবশ্য রক্ষণের ভুলেই বাগানকে ডুবতে হয়৷ নিজেদের বক্সে উলফকে ফাউল করে বিপদ ডেকে আনেন বাগান রক্ষণের প্রহরী কিংসলে৷ ৭৮ মিনিটে পোনাল্টির সহজ সুযোগ আর হাতছাডা় করেননি উলফ৷

আরও পড়ুন- শহরের রাস্তায় অ্যাডভেঞ্চার বাইক সওয়ার মহারাজ

ম্যাচে সমতা ফিরিয়ে এক পয়েন্ট ছিনিয়ে নিয়ে ১৭ ম্যাচ শেষে ৩০ পয়েন্টে চার্চিল এখন তিনে৷ তিন ম্যাচ কম খেলে(১৪ ম্যাচ) ২৮ পয়েন্ট নিয়ে চারে ইস্টবেঙ্গল৷ চার্চিলকে পয়েন্ট উপহার দিয়ে শেষ ল্যাপে লিগ আরও জমিয়ে দিল বাগান৷