কলকাতা: স্পনসর সমস্যার মাঝেই নতুন মরশুমে দল গঠনের প্রক্রিয়া ইতিমধ্যেই শুরু করে দিয়েছে মোহনবাগান। তবে আসন্ন মরশুনে দলগঠনের প্রশ্নে প্রথমেই নতুন কোচ চূড়ান্ত করে ফেলতে চাইছে শতাব্দীপ্রাচীন ক্লাব। সেকারণে সদ্য-সমাপ্ত মরশুমে পড়শি ইস্টবেঙ্গলে স্প্যানিশ আলেজান্দ্রোর মত নতুন মরশুমে মোহনবাগানও ঝুঁকছে স্প্যানিশ কোচের দিকেই।

প্রাথমিকভাবে মোহনবাগান ক্লাবের কোচের দৌড়ে ঘোরাফেরা করছে ৫টি নাম। এর মধ্যে প্রাক্তনী করিম বেঞ্চেরিফা যেমন রয়েছেন তেমই রয়েছেন পাওলো মেনেজেস, অস্কার কানো, লুইস প্লানাগুমা এবং ফার্নান্দো ভালেরা। তবে কর্তাদের পছন্দের তালিকার শীর্ষে রয়েছেন ফার্নান্দো ভালেরা। যিনি গোকুলাম কেরল এফসি’র প্রাক্তন কোচ। খেলোয়াড় এবং কোচ হিসেবে দীর্ঘ অভিজ্ঞতা থাকলেও গোকুলামে মাসখানেক কোচিং করিয়ে দেশে ফিরে যান এই স্প্যানিয়ার্ড।

তবে গত মরশুমে মাঝপথে শংকরলাল চক্রবর্তীকে সরিয়ে মুম্বইকর খালিদ জামিলকে আনা সত্ত্বেও লাভের লাভ কিছুই হয়নি। তাই আসন্ন মরশুমে দলগঠনের পাশাপাশি কোচ বাছাইয়েও বেশ ধীরস্থির নীতি গ্রহণ করেছে বাগান থিঙ্কট্যাঙ্ক। ক্লাবের সফল প্রাক্তনী মরক্কোন করিম বেঞ্চেরিফাকেও প্রয়োজনে ফেরানো হতে পারে কোচের পদে। যেহেতু হাতের তালুর মত মোহনবাগান ক্লাবকে চেনেন বেঞ্চেরিফা, তাই সহজেই মানিয়ে নেওয়ার বিষয়টিও মাথায় রয়েছে টেকনিক্যাল ও এক্সিকিউটিভ কমিটির।

সবচেয়ে তরুণ কোচ হিসেবে বাগানের র‍্যাডারে রয়েছে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন লুইস প্লানাগুমা। বর্তমানে লা লিগার দ্বিতীয় ডিভিশন ক্লাব হারকিউলিসের কোচের দায়িত্বে তিনি। এর আগে ভিয়ারিয়াল, গ্রানাদার মত ক্লাবে কোচিং করানোর অভিজ্ঞতা রয়েছে প্লানাগুমার। তালিকায় রয়েছেন এর আগে ভারতে কোচিংইয়ের অভিজ্ঞতাসম্পন্ন পাওলো মেনেজেস। এর আগে তালিকায় ডেভিড রবার্টসনের নাম থাকলেও নতুন মরশুমে তাঁর সঙ্গে চুক্তি বাড়িয়ে নিয়েছে রিয়াল কাশ্মীর এফসি।

তবে কে হবেন নতুন কোচ, জানতে আগামী সপ্তাহ অবধি অপেক্ষা করতেই হবে সমর্থকদের। এদিকে রঘু নন্দী পরবর্তী মহামেডান স্পোর্টিংয়ের নতুন কোচ হলেন সুব্রত ভট্টাচার্য।